ক্রাইস্টচার্চে ১৪ উইকেটের দিন|113267|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৭:৫৭
ক্রাইস্টচার্চে ১৪ উইকেটের দিন
অনলাইন ডেস্ক

ক্রাইস্টচার্চে ১৪ উইকেটের দিন

নিউজিল্যান্ডের উইকেট পতনের পর লঙ্কান ফিল্ডারদের উল্লাস। ছবি: শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট টুইটার

মেঘলা আকাশ, ঘুমোট পরিবেশে দ্যুতি ছড়ালেন সুরেঙ্গা লাকমল। সঙ্গে লাহিরু কুমারার ছোবল। তাতে দিশেহারা হলো নিউজিল্যান্ড।

কিউইদের দুইশো রানের নিচে থামিয়ে ব্যাটিংয়ে নেমে স্বস্তিতে নেই শ্রীলঙ্কাও। দ্রুতই চার উইকেট হারিয়ে তারাও বিপদে। ১৪ উইকেট পতনে ক্রাইস্টচার্চ টেস্টের প্রথম দিনটা নিজেদের করে নিল বোলাররা।

ক্রাইস্টচার্চে হ্যাগলি ওভালে বুধবারের খেলা শেষে প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৮৮ রান। পঞ্চম উইকেট জুটিতে দলকে স্বস্তি এনে দেওয়ার চেষ্টায় লড়ছেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ও রোশেন সিলভা। এই জুটিতে এরই মধ্যে এসেছে ৩৭ রান। লঙ্কানরা এখনও পিছিয়ে ৯০ রানে। হাতে আছে ৬ উইকেট।

স্বাগতিক দলের ১৭৮ রানের জবাবে ব্যাট করতে নামা শ্রীলঙ্কার শুরুটা ছিল খুবই বাজে। টপ-অর্ডার তিন ব্যাটারের কেউই দুই অংকের ঘরে পৌঁছাতে পারেননি। টিম সাউথির আগুনে পেসের শিকার হন দানুশকা গুনাথিলাকা, দিমুথ করুনারত্নে ও দিনেশ চান্দিমাল। মাত্র ২১ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে মারাত্মক ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে যায় কোচ চন্দিকা হাথুরুসিংহের দল।

চতুর্থ উইকেট জুটিতে মেন্ডিস ও ম্যাথিউস বিপর্যয় কিছুটা কাটানোর চেষ্টা করলেও পেরে ওঠেননি। দলীয় ৫১ রানে কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের বলে কট বিহাইন্ডন হন ৩২ বলে ১৫ রান করা মেন্ডিস।

তবে পঞ্চম উইকেটে আর উইকেট পড়তে দেননি ম্যাথিউস-সিলভা জুটি। ওয়েলিংটন টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করা ম্যাথিউস ৬৪ বলে ২৭ রান ও সিলভা ৪৭ বলে ১৫ রানে অপরাজিত আছেন।

১১ ওভারে ২৯ রানে তিন উইকেট নিয়েছেন সাউথি। ১৯ রান খরচায় একটি উইকেট নিয়েছেন গ্র্যান্ডহোম।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নামা নিউজিল্যান্ড শিবিরে শুরুতেই ধ্স নামান লাকমল। দলীয় ৫৭ রানেই শুরুর পাঁচ উইকেট হারিয়ে পথহারা হয় স্বাগতিক দল। এর মধ্যে চারজনই লাকমলের শিকার। একজন রানআউট। দলীয় ৬৪ রানে ষষ্ঠ উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড।

কিউইদের লজ্জার হাত থেকে বাঁচিয়েছে বিজে ওয়াটলিং-সাউথি জুটি। এই জুটির দৃঢ়তায় মনে হচ্ছিল অন্তত দুইশো রানের গন্ডি পার হতে পারবে তারা।

কিন্তু ১০৮ রানের এই জুটিকে আর এগুতে দেননি দিলরুয়ান পেরেরা। তার বলে শর্ট মিড উইকেটে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ৬৫ বলে ছয় চার ও তিন ছক্কায় ৬৮ রান করা সাউথি। নিউজিল্যান্ডের রান তখন ৭ উইকেটে ১৭২। ছয় রানের মধ্যে লাকমল-কুমারার সুইয়ের শিকার হন নিল ওয়াগনার (০), ওয়াটলিং (৪৬) ও প্যাটেল (২)।

এর মধ্যে ওয়াগনারকে ফিরিয়ে নিজের পঞ্চম উইকেট নেন লাকমল। পাঁচটি উইকেট নিতে ১৯ ওভারে দিয়েছেন ৫৪ রান। টেস্টে এক ইনিংসে এটা তার ক্যারিয়ার সেরা বোলিং। এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৬৩ রানে পাঁচ উইকেট নিয়েছিলেন লাকমল। ৪৯ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন লাহিরু কুমারা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

নিউ জিল্যান্ড ১ম ইনিংস: ১৭৮ (রাভাল ৬, ল্যাথাম ১০, উইলিয়ামসন ২, টেইলর ২৭, নিকোলস ১, ওয়াটলিং ৪৬, ডি গ্র্যান্ডহোম ১, সাউদি ৬৮, ওয়েগনার ০, প্যাটেল ২, বোল্ট ১*; লাকমল ৫/৫৪, কুমারা ৩/৪৯, ম্যাথিউস ০/৬, চামিরা ০/৪৩, পেরেরা ১/১৩)

শ্রীলঙ্কা ১ম ইনিংস: ৩২ ওভারে ৮৮/৪ (গুনাথিলাকা ৮, করুনারত্নে ৭, চান্দিমাল ৬, মেন্ডিস ১৫, ম্যাথিউস ২৭*, সিলভা ১৫*; বোল্ট ০/২০, সাউদি ৩/২৯, ডি গ্র্যান্ডহোম ১/১৯, ওয়েগনার ০/১০)

টস: নিউজিল্যান্ড