জনসংখ্যা কমার রেকর্ডে উদ্বিগ্ন জাপান|113480|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৭:২৪
জনসংখ্যা কমার রেকর্ডে উদ্বিগ্ন জাপান
অনলাইন ডেস্ক

জনসংখ্যা কমার রেকর্ডে উদ্বিগ্ন জাপান

গত বছরের তুলনায় এবার ২৫ হাজার শিশু কম জন্মেছে।

দিনে দিনে জন্মহার কমায় উদ্বিগ্ন জাপান। ২০১৮ সালে এই কমার হার রেকর্ড সংখ্যক পর্যায়ে দাঁড়িয়েছে। চলতি বছর ৯ লাখ ২১ হাজার শিশু জন্ম নিয়েছে। সেখানে মারা গেছেন ১৩ লাখ ৭০ হাজার মানুষ!

জাপানে ১৮৯৯ সালে জন্মহার, মৃত্যুহার রেকর্ড রাখার প্রচলন শুরু হয়। তারপর থেকে এবারই সবচেয়ে কম জন্মহার।

জাপানে এই নিয়ে টানা তিন বছর জন্মহার ১০ লাখের কম। গত বছরের তুলনায় এবার ২৫ হাজার শিশু কম জন্মেছে। যুদ্বপরবর্তী সময়ে এত মৃত্যুহারও দেখেনি দেশটি।

জাপানে ২০১৬ সালে প্রথম জনসংখ্যা কমতে থাকে। ওই সময়ে পাঁচ বছরে জনসংখ্যা কমে যায় দশ লাখ। এবার এক বছরে কমে গেল চার লাখ ৪৯ হাজার!

উন্নত দেশগুলোতে জনসংখ্যা স্থিতিশীল রাখতে হলে অন্তত দুই দশমিক এক জন্মহার প্রয়োজন হয়। জাপানের বর্তমান জন্মহার তার অনেক নিচে।

পর্তুগাল, ইতালি, জার্মানিকে ছাড়িয়ে জাপানে বয়স্ক লোকের পরিমাণ সবচেয়ে বেশি।

দেশটির জাতীয় জনসংখ্যা ও সামাজিক নিরাপত্তা গবেষণা ইনস্টিটিউটের তথ্যমতে, ২০৪০ সাল নাগাদ ৩৫ শতাংশের বেশি জাপানির বয়স ৬৫ কিংবা তার বেশি হবে।

জনসংখ্যা বাড়াতে জাপান নানা রকম কর্মসূচি হাতে নিয়েও সফল হতে পারছে না। নারী প্রতি জন্মহার এক দশমিক চার থেকে এক দশমিক আটে উন্নীত করতে চায় দেশটির সরকার।

সামাজিক নিরাপত্তা গবেষণা ইনস্টিটিউটের এক কর্মকর্তা জাপান টাইমসকে বলেন, “এভাবে জন্মহার কমে যাওয়ায় আমরা উদ্বিগ্ন। সামনের বছরগুলোতে পরিস্থিতি না পাল্টালে পরিণতি ভয়াবহ হবে।”