আড়াই দিনেই হারল পাকিস্তান|113752|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০
আড়াই দিনেই হারল পাকিস্তান
ক্রীড়া ডেস্ক

আড়াই দিনেই হারল পাকিস্তান

হাশিম আমলা অপরাজিত ছিলেন ৬৩ রানে। ১১ ইনিংস পর হাফসেঞ্চুরির করলেন তিনি আর দক্ষিণ আফ্রিকাও জয় পেল। মাত্র আড়াই দিনে ৬ উইকেটে সেঞ্চুরিয়ান টেস্ট জিতে তিন ম্যাচের সিরিজে ১-০-তে এগিয়ে গেল স্বাগতিকরা। ফর্মে ফেরা ডিন এলগার ১২৩ বলে ৫০ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেছেন।তৃতীয় দিনে ১৪৯ রানের টার্গেট বেশ হেসেখেলে পূরণ করেছে স্বাগতিকরা।এ দিনের দ্বিতীয় সেশনেই ম্যাচ শেষ। ৬ উইকেটে হার। এটা দেখে যদি কেউ ভেবে থাকেন সেঞ্চুরিয়নে

পাকিস্তান অসহায় আত্মসমর্পণ করেছে তাহলে ভুল হবে। আসলে এই টেস্টের প্রথম দুদিনে জম্পেশ লড়াই হয়েছে। শেষ পর্যন্ত কাজটা সহজ করে জিতেছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

গতকাল দিনের প্রথম ঘণ্টায় বেশ নড়বড়ে ছিলেন আমলা ও এলগার। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে এইডেন মার্করামকে কোনো রান করার আগেই আউট করেন হাসান আলি। কিছুটা চাপ প্রোটিয়াদের ওপর। দুই প্রান্ত থেকে তখন নিখুঁত লাইন লেন্থে বল করছিলেন পাকিস্তানি পেসাররা। এই ঝড়ের মুখেই ধীরে ধীরে থিতু হন আমলা ও এলগার। ৮১ রানের জুটি গড়ে মধ্যাহ্ন বিরতির আগে চাপটা পাকিস্তানের ওপর ফিরিয়েও দেন। শেষ পর্যন্ত দলীয় ১১৯ রানের মাথায় আউট হন এলগার। ততক্ষণে টেস্ট জয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। অভিজ্ঞ আমলা অপরাজিত থেকে টেম্বা বাভুমাকে সঙ্গে নিয়ে বাকি পথটুক অনায়াসে পেরিয়ে গেছেন। ম্যাচসেরা হয়েছেন পেসার ডুয়ানে অলিভিয়ের। দুই ইনিংসেই পাকিস্তানের মূল সর্বনাশটা করেছেন তিনিই।

টেস্ট জিতে সিরিজে এগিয়ে যাওয়ার পর অধিনায়ক ফ্যাফ ডু প্লেসি বলেছেন, ‘প্রথম ইনিংসে দুই দল এক জায়গায় দাঁড়িয়ে ছিল। আমরা তাদের ২৫০ রানের মধ্যে বেঁধে রাখতে চেয়েছিলাম। কিন্তু আমাদের বোলাররা দুর্দান্তভাবে ওদের ৯ উইকেট তুলে নেয়। বিশেষ করে বলতে হবে ডুয়ানের কথা। ও আমাকে মিচেল জনসনকে মনে করাচ্ছিল।’

সেঞ্চুরিয়নে অদ্ভুত এক বিশ্বরেকর্ড হয়েছে। দু’দলের অধিনায়ক উভয় ইনিংসে শূন্য রানে আউট হয়েছেন। সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট কেপটাউনে শুরু হবে ৩ জানুয়ারি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
পাকিস্তান ১ম ইনিংস : ১৮১/১০ ও ২য় ইনিংস : ১৯০/১০।

দক্ষিণ আফ্রিকা ১ম ইনিংস : ২২৩/১০ ও ২য় ইনিংস : ১৫১/৪ (আমলা ৬৩*, এলগার ৫০, বাভুমা ১৩*; শান মাসুদ ১/৬, ইয়াসির ১/২০, হাসান ১/৩৯, শাহীন শাহ ১/৫৩)।

ফল : দক্ষিণ আফ্রিকা ৬ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচসেরা : ডুয়ানে অলিভিয়ের।