সৌদিতে অস্ত্র বিক্রি বন্ধ করতে চায় ইতালিও|113825|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১০:২৭
সৌদিতে অস্ত্র বিক্রি বন্ধ করতে চায় ইতালিও
অনলাইন ডেস্ক

সৌদিতে অস্ত্র বিক্রি বন্ধ করতে চায় ইতালিও

সৌদি আরব সম্পর্কে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করেন কন্তে। ছবি: ফেসবুক

ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, জার্মানি এবং নরওয়ের পর ইতালিও সৌদি আরবে অস্ত্র বিক্রি বন্ধের পরিকল্পনা করছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ কন্তে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান।

প্রত্যেক বছরের শেষ দিকে ইতালির প্রধানমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলন করেন। এটি এখন দেশটির ঐতিহ্যে পরিণত হয়েছে।

বছর শেষের এই সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্নোত্তর পর্বে সৌদি আরব সম্পর্কে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করেন কন্তে।

তিনি বলেন ‘আমরা অস্ত্র বিক্রির পক্ষে নই। সুতরাং এখন পদক্ষেপ নেওয়ার প্রশ্ন।’

সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যার পর মূলত সৌদি আরবের সঙ্গে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সম্পর্ক তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে।

গত ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে হত্যাকাণ্ডের শিকার হন ওয়াশিংটন পোস্টের কলামিস্ট খাশোগি। সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের কড়া সমালোচক হিসেবে পরিচিত ছিলেন তিনি।

বিয়ে সংক্রান্ত কাজে ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে প্রবেশের পর নিখোঁজ হন খাশোগি। শুরুতে তার নিখোঁজের অভিযোগ অস্বীকার করে সৌদি।

তবে সংবাদমাধ্যমে তুর্কি গোয়েন্দাদের একের পর এক ‘তথ্য ফাঁসের’ মুখে ১৯ অক্টোবর খাশোগি হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে বলে স্বীকার করে সৌদি কর্তৃপক্ষ। যদিও এর সঙ্গে সৌদি যুবরাজের কোনো সম্পৃক্ততা নেই বলে তারা দাবি করে।

অন্য দেশের মতো ইতালিও বিষয়টি ভালোভাবে নেয়নি। তাছাড়া ইয়েমেন পরিস্থিতির কারণেও তারা সৌদির কাছ থেকে সরে আসছে। জাতিসংঘের তথ্য মতে, ১৪ মিলিয়ন মানুষ সেখানে অনাহারে ভুগছে।

খাশোগি হত্যার পর কানাডাও সৌদিতে অস্ত্র বিক্রি নিয়ে ভাবতে শুরু করেছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো জানিয়েছেন, তার সরকার সৌদি আরবের সঙ্গে ১১.৫ বিলিয়ন ডলারের অস্ত্র বিক্রির চুক্তি থেকে বেরিয়ে আসার পথ খুঁজছে।