অলস সময়ে ক্রিকেট খেললেন সাংবাদিকরা|114091|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২০:৩৭
অলস সময়ে ক্রিকেট খেললেন সাংবাদিকরা
মেহেরপুর প্রতিনিধি

অলস সময়ে ক্রিকেট খেললেন সাংবাদিকরা

ছবি: দেশ রূপান্তর

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণের দিন নির্বাচনী সংবাদ সংগ্রহের বদলে খেলাধুলা আর আড্ডায় সময় পার করেছে মেহেরপুরের গণমাধ্যমকর্মীরা। রোববার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত যখন কেন্দ্রে কেন্দ্রে ভোটারদের নির্বাচনী উত্তাপ, ঠিক তখনই মেহেরপুরের সাংবাদিকরা প্রেসক্লাবের সামনে প্রধান সড়কে ক্রিকেট খেলে অলস সময় কাটায়।

মেহেরপুর জেলার দুটি আসনের মধ্যে মেহেরপুর-১ আসনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের হয়ে লড়ছেন ফরহাদ হোসেন দোদুল এবং বিএনপির হয়ে লড়ছেন মাসুদ অরুণ। মেহেরপুর-২ আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী সাহিদুজ্জামান খোকন। আসনে বিএনপি প্রার্থী জাভেদ মাসুদ মিল্টন।

সংবাদ কর্মীরা জানান, সকালে শহরের এবং গ্রামের কিছু কেন্দ্রে গিয়ে ভোটারবিহীন পরিবেশ দেখা গেছে। একজন প্রার্থীর দখলে দেখা গেছে অধিকাংশ কেন্দ্র। নিরুত্তাপ এবং একপেশে পরিবেশ দেখে তারা পেশাগত কাজে ব্যস্ত থাকার বদলে সহকর্মীদের সাথে ক্রিকেট খেলে সময় কাটায়।

প্রথম আলো সাংবাদিক আবু সাঈদ বলেন, নির্বাচনী সংবাদ সংগ্রহ ও প্রেরণ নিয়ে অফিসের কোনো চাপ নেই, আবার কেন্দ্রে কেন্দ্রে ভোটার শূন্য একতরফা পরিবেশ। তাই ক্রিকেট খেলে অলস সময় পার করছি।

এনটিভি সাংবাদিক রেজয়ান উল বাশার তাপস বলেন, এবারই প্রথম ঢাকা অফিসের চাপহীন পরিবেশে আছি। তাই খেলা, আড্ডার মধ্যে নির্বাচনী ব্যস্ত দিনটি পার করছি।

মেহেরপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল আলম বলেন, সাংবাদিকরা ভোট শুরুর দৃশ্য ও কেন্দ্রের নিরুত্তাপ প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন অবস্থা দেখে খেলা শুরু করেছে। যা আমরা উপভোগ করছি।

মেহেরপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি বিটিভি সাংবাদিক আলামিন হোসেন বলেন, অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট হচ্ছে। তাই সাংবাদিকরা নিশ্চিন্ত মনে খেলা করে সময় কাটাচ্ছে।

কেন্দ্রে পরিদর্শনকালে মেহেরপুর সরকারি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রে মেহেরপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য প্রার্থী মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফরহাদ হোসেন দোদুল তার প্রতিক্রিয়া জানান। এ সময় তিনি বলেন, অত্যন্ত গণতান্ত্রিক উপায়ে ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ ভোট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

অন্যদিকে মেহেরপুর-১ আসনের বিএনপি প্রার্থী জেলা বিএনপির সভাপতি মাসুদ অরুণ সকাল ১০ টায় মেহেরপুর প্রেসক্লাবে গিয়ে এক প্রতিক্রিয়ায় অভিযোগ করে জানান, আগের দিন রাত থেকে অনেক কেন্দ্রে ব্যালট ছিড়ে ভোট দেওয়ার ঘটনা ঘটে।

শহরের কলেজ মোড় পাড়ার ভোটার নন্দিতা ঊর্মি। তিনি বিষণ্ন মন নিয়ে ভোট কেন্দ্র থেকে বাড়ি যাওয়ার সময় এক প্রতিক্রিয়ায় জানান, ভোট আমার গণতান্ত্রিক অধিকার। অথচ সেই অধিকারটুকু প্রয়োগের আগেই কেন্দ্রে গিয়ে জানতে পারলাম আমার ভোটটি কে বা কারা দিয়ে দিয়েছে।

মেহেরপুর জেলা রিটার্নিং অফিসার জেলা প্রশাসক আতাউল গণি বলেন, সকলের আন্তরিক সহযোগিতায় মেহেরপুরে একটি উৎসবমুখর ভোট অনুষ্ঠিত হলো। এ কারণে জেলার কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।