ধানের শীষের ‘এজেন্টশূন্য’ ঢাকা|114238|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০
ধানের শীষের ‘এজেন্টশূন্য’ ঢাকা
নিজস্ব প্রতিবেদক

ধানের শীষের ‘এজেন্টশূন্য’ ঢাকা

রাজধানীর বেশির ভাগ কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের বিপুলসংখ্যক এজেন্ট দেখা গেলেও ধানের শীষ বা অন্য প্রার্থীদের এজেন্ট চোখে পড়েনি। প্রায় সব কটি আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের কিছু পোলিং এজেন্ট দেখা গেছে। শুরুতে কিছু কেন্দ্রে এজেন্ট থাকলেও সকাল ১০টার পর তারা বের হয়ে যান। দুপুরের পর ১৬টি আসনের কোথাও ধানের শীষের এজেন্ট খুঁজে পাওয়া যায়নি।

ঢাকা-৮ আসনে গতকাল সকাল ১০টার পর আর কোনো এজেন্ট পাওয়া যায়নি পল্টনের আনন্দ ভবন কমিউনিটি সেন্টারে। ধানের শীষের এজেন্ট না থাকা প্রসঙ্গে ঢাকা মেডিকেল কলেজ কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা মুশিবুর রহমান বলেন, ‘আমরা সকালেই তাদের জন্য অপেক্ষা করেছি। কিন্তু তাদের কেউ আসেনি।’

দক্ষিণ শাহজাহানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা ধীরেশ চন্দ্র দেব বলেন, ‘সকালে বুথে ধানের শীষের এজেন্ট আসে। কিন্তু ১০টার দিকে তারা বেরিয়ে যায়।’

টিঅ্যান্ডটি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা আজিজুর রহমান, মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা সাদিকুল আলম ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা মশিবুল আলম জানান, ধানের শীষের কোনো এজেন্ট আসেনি।

ঢাকা-৭ আসনে অগ্রণী স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে ও বংশালের এফ কে এস সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শীষের এজেন্ট পাওয়া যায়নি। বংশাল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রেও ধানের শীষের এজেন্ট আসেননি বলে জানান প্রিসাইডিং কর্মকর্তা চয়ন চাকমা।

ঢাকা-২ আসনে কামরাঙ্গীরচরে আল-আমিন ইসলামিয়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে বুথের সংখ্যা ১৫টি। কোনো বুথেই ধানের শীষের এজেন্ট ছিল না। প্রিসাইডিং কর্মকর্তা উজ্জ্বল হোসাইন বলেন, ‘ধানের শীষের কোনো এজেন্ট আসেনি। ঢাকা-২ আসনের বেশ কয়েকটি কেন্দ্র ঘুরে একটিতেও ধানের শীষের এজেন্ট পাওয়া যায়নি।’

ঢাকা-১৭ আসনে ধানের শীষের কোনো পোলিং এজেন্ট ছিল না কেন্দ্রগুলোতে। কেন্দ্রের সামনে কোনো নেতাকর্মীকেও দেখা যায়নি। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক প্রিসাইডিং কর্মকর্তা দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘কেন্দ্রে যদি পোলিং এজেন্ট না আসে, তবে আমাদের কী করার আছে। আর তারা কেন আসতে পারছে না বা আসছে না, তা আপনারা সাংবাদিকরাও জানেন।’

ঢাকা-১০ আসনের কেন্দ্রগুলোতে বিএনপির কোনো পোলিং এজেন্টও চোখে পড়েনি। কেন্দ্রের চারপাশ ঘিরে শুধু আওয়ামী লীগের পোলিং এজেন্ট। ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, আইডিয়াল কলেজ, কাঁঠাল বাগানসহ কোনো কেন্দ্রেই ধানের শীষের এজেন্ট খুঁজে পাওয়া যায়নি।

ঢাকা-১৩ আসনের প্রত্যেক ভোটকেন্দ্র থেকে বিএনপির পোলিং এজেন্টদের মারধর করে বের করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি প্রার্থী আবদুস সালাম। তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে ধানের শীষের এজেন্টদের মারধর করা হয়েছে।’

ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজের তিনটি ভোটকেন্দ্রে, শারীরিক শিক্ষা কলেজের কেন্দ্রে, মোহাম্মদিয়া আলিম মাদ্রাসা, লোটাস ন্যাশনাল স্কুল, হাসেম খান ইউসেপ স্কুল, শংকরে ইউসুফ হাই স্কুল, রায়েরবাজার কমিউনিটি সেন্টারসহ ১২টি ভোটগ্রহণ কক্ষ ঘুরে বিএনপির এজেন্ট পাওয়া যায়নি।

ঢাকা-৫ আসনের অন্তত ১৩টি কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে, মাত্র তিনটি কেন্দ্রে ধানের শীষ প্রতীকের কয়েকজন এজেন্ট। অপর কেন্দ্রগুলোতে কাউকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

যাত্রাবাড়ীর সুরুজবাগ এলাকার প্যারাডাইস ইংলিশ স্কুল কেন্দ্রে দেখা যায়, সেখানে চারটি বুথে মাত্র তিনজন ধানের শীষের এজেন্ট রয়েছেন। এ ছাড়া সড়কের ওপাশে যাত্রাবাড়ী বালক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চারটি কেন্দ্রে একজন করে ধানের শীষের এজেন্ট দেখা যায়। ঢাকা-১৮, ঢাকা-১৪, ঢাকা-১৫, ঢাকা-১৬, ঢাকা-১২সহ বিভিন্ন আসনে সরেজমিন ঘুরে কোনো কেন্দ্রেই ধারেন শীষের এজেন্ট পাওয়া যায়নি। ঢাকা-১৫ আসনে দুপুরের পরই ধানের শীষের প্রার্থী নির্বাচন বর্জন করেন।