ডাকাতের হাতে সব খুইয়ে বছর শুরু হলো শিক্ষক পরিবারের|114478|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১ জানুয়ারি, ২০১৯ ২০:৪০
ডাকাতের হাতে সব খুইয়ে বছর শুরু হলো শিক্ষক পরিবারের
কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি

ডাকাতের হাতে সব খুইয়ে বছর শুরু হলো শিক্ষক পরিবারের

ঘর তছনছ করে ফেলে ডাকাতরা।

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে একটি আবাসিক ভবনের দুই বাসার বাসিন্দাদের ডাকাতের হাতে সব খুইয়ে বছর শুরু হয়েছে। ডাকাতদল নগদ অর্থ ও স্বর্ণসহ দুটি বাসা থেকে প্রায় সাড়ে ৬ লাখ টাকার মালামাল লুট করে।  

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার জানিয়েছে মঙ্গলবার রাত ২টার দিকে ভৈরব শহরের গাছতলাঘাট এলাকার আতিকুল ইসলামের বিল্ডিং এর দোতলার দু’টি বাসায় ডাকাতির ঘটনা ঘটে। 

ডাকাতির শিকার হওয়া পরিবার প্রধান শিক্ষক আমিনুল ইসলাম জানান, দুই ইউনিটের তিনতলা এই ভবনটির মালিক তার স্ত্রীর বড়ভাই আতিকুল ইসলাম। তারা দুই পরিবারই দোতলার দুটি ইউনিটে পাশাপাশি থাকেন। সোমবার তিনি তার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে রাত ১১ টার দিকে ঘুমিয়ে পড়েন। 

ভোররাত দুইটার দিকে ভবনের নীচে প্রধান গেটে বিকট আওয়াজ শুনে তার ঘুম ভেঙ্গে যায়। কোন কিছু বুঝার আগেই তার রুমের দরজার তালা শাবল দিয়ে ভেঙ্গে ৭/৮ জনের একটি ডাকাতদল রুমে ঢোকে। ডাকাতরা রুমে প্রবেশ করেই ছুরির ভয় দেখিয়ে আমিনুল ইসলামের হাত-পা বেঁধে ফেলে। পরে তার স্ত্রী শরমিন আক্তারের কাছ থেকে চাবি নিয়ে আলমারি থেকে ১ লাখ ১৫ হাজার নগদ টাকা ও ৪ ভরি স্বর্ণ এবং ২টি মোবাইল সেট লুটে নেয়। 

এরপর আতিকুল ইসলামের রুমের দরজাটিও ডাকাতরা একই কায়দায় ভেঙ্গে রুমে প্রবেশ করে। এই রুম থেকেও একইভাবে আলমারির চাবি নিয়ে নগদ ৫৫ হাজার টাকা, সাত ভরি স্বর্ণ এবং তিনটি মোবাইল সেটসহ মূল্যবান মালামাল নিয়ে নেয় ডাকাতদল। ডাকাতি শেষে দুটি রুমের দরজার বাইরে লক করে ডাকাতদল পালিয়ে যায়।
 
ভৈরব থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বাহারুল খাঁন বাহার জানান, ঘটনা শুনে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি জানান।
মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানায় ক্ষতিগ্রস্তরা।