পঞ্চগড়ে হাড় কাঁপানো শীত|114737|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৩ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০
পঞ্চগড়ে হাড় কাঁপানো শীত
পঞ্চগড় প্রতিনিধি

পঞ্চগড়ে হাড় কাঁপানো শীত

মধ্য পৌষে পঞ্চগড়ে আঘাত হেনেছে তীব্র শীত। উত্তরের হিম বায়ু সেই শীতের তীব্রতা বাড়িয়ে দিচ্ছে কয়েকগুণ। প্রতিদিনই কমছে তাপমাত্রার পারদ। হাড় কাঁপানো শীতে বিপাকে পড়েছেন জেলার ছিন্নমূল মানুষ। সবচেয়ে বেশি বিপদে পড়েছেন বৃদ্ধ ও শিশুরা। হাসপাতালে প্রতিদিনই বাড়ছে শীতজনিত রোগীর সংখ্যা।

তেঁতুলিয়া আবহাওয়া অফিসের তথ্যমতে, গতকাল বুধবার সকাল ৯টায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৪.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গত শুক্রবার সকাল ৯টা পর্যন্ত সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ৭ দশমিক ৭ ডিগ্রি, শনিবার ৫ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, সোমবার ৫ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও মঙ্গলবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৫ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তেঁতুলিয়া আবহাওয়া অফিসের সহকারী পর্যবেক্ষক রহিদুল ইসলাম বলেন, কয়েকদিন ধরে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হচ্ছে তেঁতুলিয়াতে। এ অবস্থা আরও কয়েকদিন চলবে।

তীব্র শীতের কারণে বিপাকে পড়েছে খেটে খাওয়া মানুষগুলো। উত্তুরে হিম হাওয়ায় প্রয়োজন ছাড়া অনেকেই বাইরে বের হচ্ছেন না। ছিন্নমূল মানুষ গরম কাপড়ের অভাবে কষ্টে আছেন। খড়কুটোর আগুনই একমাত্র ভরসা তাদের। দিনের বেলা শীত কম থাকলেও সন্ধ্যা নেমে এলেই বেড়ে যায় শীত। রাতে বিভিন্ন জাগায় নিম্ন আয়ের লোকজনকে আগুন জ্বালিয়ে শীত নিবারণ করতে দেখা যায়।  জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন জানান, চলতি মৌসুমে ২৫ হাজার কম্বল এসেছে, যা এরমধ্যে বিতরণ করা হয়েছে। আরও ২০ হাজার কম্বল চেয়ে ফ্যাক্সবার্তা পাঠানো হয়েছে।