ক্ষমতাকে ব্যক্তিগত সম্পদ অর্জনের হাতিয়ার বানাবেন না: শেখ হাসিনা |114874|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৩ জানুয়ারি, ২০১৯ ২২:৪৫
ক্ষমতাকে ব্যক্তিগত সম্পদ অর্জনের হাতিয়ার বানাবেন না: শেখ হাসিনা
বিশেষ প্রতিনিধি

ক্ষমতাকে ব্যক্তিগত সম্পদ অর্জনের হাতিয়ার বানাবেন না: শেখ হাসিনা

আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের বৈঠকে শেখ হাসিনা।

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী সংসদ সদস্যদের বলেছেন, ক্ষমতাকে কেউ ব্যক্তিগত সম্পদ অর্জনের হাতিয়ার বানাবেন না। সব জনগণকে সমানভাবে দেখবেন।

তিনি বলেন, কে নৌকায় ভোট দিল কে দিল না সেটা বিবেচ্য নয়। আমরা সবার উন্নয়ন করব।

বৃহস্পতিবার শপথগ্রহণ শেষে সংসদ ভবনে আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের বৈঠকে শেখ হাসিনা এই নির্দেশনা দেন বলে বৈঠকে উপস্থিত একাধিক সদস্য জানান।

বৈঠকের শুরুতে সর্বসম্মতিক্রমে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের শেখ হাসিনার নাম সংসদীয় দলের নেতা হিসেবে প্রস্তাব করেন। দলের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আমির হোসেন আমু প্রস্তাব সমর্থন করেন।

এরপর শেখ হাসিনা বলেন, আপনারা আমাকে সংসদীয় দলের নেতা বানিয়েছেন এ জন্য আপনাদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। তবে এটাই যেন শেষ হয়। এ সময় সংসদ সদস্যরা সমস্বরে  ‘নো নো’ বলে ওঠেন। তারা বলেন, আপনি যত দিন আছেন আপনি আমাদের সংসদীয় দলের নেতা, দলের নেতা, বাংলাদেশের নেতা এবং আমাদের অভিভাবক আপনি।

এরপর শেখ হাসিনা এমপিদের উদ্দেশে বলেন, আমরা জনগণের কাছে ঋণী, উন্নয়নের মাধ্যমে সেই ঋণ পরিশোধ করা হবে। 

তিনি বলেন, একটা কথা মনে রাখবেন ক্ষমতা চিরস্থায়ী নয়, ক্ষমতাকে কেউ নিজেদের সম্পদ মনে করবেন না। আমরা আজ আছি, কিন্তু ক্ষমতা কোনোভাবে চিরস্থায়ী নয়। ক্ষমতাকে কেউ ব্যক্তিগত স্বার্থে ব্যবহার করবেন না। সম্পদ অর্জনের হাতিয়ার বানাবেন না।

শেখ হাসিনা সংসদ সদস্যদের নির্বাচনী এলাকার জনগণের সুখ-দুঃখে থাকার নির্দেশ দিয়ে বলেন, জনগণের সঙ্গে থাকবেন। আর না হয় কেউ আমাদের ক্ষমতায় রাখতে পারবে না। নির্বাচনে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ঐক্যফ্রন্টের ভরাডুবি প্রসঙ্গে বলেন, তারা নিজের দোষে ডুবেছে। জনগণের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন থাকায় জনগণ তাদের সমুচিত জবাব দিয়েছে। 
তিনি বলেন, বিএনপি, ঐক্যফ্রন্ট জামায়াতের সঙ্গে ঐক্য, যুদ্ধাপরাধীদের মনোনয়ন দিয়েছে। তারা মনোনয়ন বাণিজ্য করেছে, নির্বাচন নয়, যেন তাদের লক্ষ্যই ছিল মনোনয়ন বাণিজ্য করা। 

এমপিদের সজাগ থাকার নির্দেশ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ষড়যন্ত্র শেষ হয়নি। ষড়যন্ত্র এখনো চলছে। ঐক্যফ্রন্ট বা বিএনপি প্রত্যেকের নামে মামলা করতে পারে। এটা মোকাবিলা করতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, আগামী ১৫ দিন পরে অধিবেশন বসবে, সবাই ভালো করে প্রস্তুতি নেবেন। সংসদ লাইব্রেরিতে যাবেন, সেখানে বসে লেখাপড়া করবেন। এখন আর কেউ ঢাকায় বসে থাকার দরকার নেই। শপথ হয়ে গেছে। সবাই এলাকায় গিয়ে ভোটারদের সঙ্গে কথা বলেন, দেখা করেন।