৯৯৯-এ ফোন পেয়ে ডাকাত ধরতে গিয়ে পুলিশ দেখল অন্যকাণ্ড!|117733|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯ ২২:২৭
৯৯৯-এ ফোন পেয়ে ডাকাত ধরতে গিয়ে পুলিশ দেখল অন্যকাণ্ড!
নিজস্ব প্রতিবেদক

৯৯৯-এ ফোন পেয়ে ডাকাত ধরতে গিয়ে পুলিশ দেখল অন্যকাণ্ড!

রাজধানীর আদাবরে ডাকাত পড়েছে, ৯৯৯ এ খবর পেয়ে ছুটে যায় পুলিশ। ঘটনাস্থলে পৌঁছে ব্যাপক শোরগোল দেখে প্রথমেই নির্দিষ্ট বাড়িটি ঘেরাও করে ফেলেন করিতকর্মা পুলিশ সদস্যরা। ডাকাত ধরতে প্রস্তুতি নেয় পুলিশ। একপর্যায়ে জানা যায় ঘটনা অন্যরকম।

আদাবর থানায় ১৪ নম্বর রোডে শুক্রবার বিকেল ৩ টায় এ ঘটনা ঘটে। অনেকে পুলিশের এমন কর্মতৎপরতার প্রশংসা করলেও, ঘটনাটি এলাকাবাসীর মধ্যে বেশ হাস্যরস তৈরি করেছে।

স্থানীয়রা জানান, ৯৯৯ এ ডাকাতির খবর পেয়ে পুলিশ দুই পক্ষের শোরগোলের মধ্যে বাড়ি ঘেরাও করে ডাকাত সদস্যদের পাকড়াওয়ের প্রস্তুতি নেয়। এরপরই জানা যায় ভাড়া নিয়ে  বাড়িওয়ালা রফিকুল ইসলাম ও ভাড়াটে মঞ্জুর কাদেরের  মধ্যে চলমান দীর্ঘদিনের গন্ডগোলের জের ধরে বাড়িওয়ালা ও ভাড়াটের মধ্যে তুমুল বচসা চলছে বাড়িটিতে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত জানা যায়, বাড়িওয়ালা ও ভাড়াটের মধ্যে প্রাথমিক মীমাংসার চেষ্টা করে পুলিশ থানায় ফিরে গেছে।

আদাবর থানার ওসি কাউসার আহমেদ বলেন, ডাকাতির খবর পেয়ে পুলিশ বাড়িটি ঘিরে ফেলে। এরপরই বুঝতে পারে, ভাড়া নিয়ে বাড়িওয়ালা ডা: রফিকুল ইসলাম ও তার ভাড়াটিয়া মঞ্জুর কাদেরের মধ্যে বচসা চলছিল। পরে দুই পক্ষের লোকজনকে বুঝিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়।

আদাবর থানার ডিউটি অফিসার নিশাত জাহান জানান, ট্রিপল ৯৯৯ লাইনে থেকে  ফোন দিয়ে জানিয়েছিল, ১৪ নাম্বার রোড এলাকার একটি বাসায় ডাকাতি হচ্ছে। এ রকম সংবাদ পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পৌঁছে নির্দিষ্ট বাসাটি ঘিরে ফেলে।

আদাবর থানার পরিদর্শক(তদন্ত) শাহিনুর রহমান দেশ রূপান্তরকে বলেন, বাড়ির ভাড়াটিয়া মঞ্জুর কাদের একজন সাবেক জজ। বাড়ির ভাড়া নিয়ে তার সঙ্গে বাড়িওয়ালার দীর্ঘদিন ধরেই  দ্বন্দ্ব  ও মামলা চলছিল। এ নিয়ে গতকালও তাদের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা ও হইচইয়ের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় বাড়িওয়ালার পক্ষ থেকে কেউ ৯৯৯ এ ফোন করে ডাকাতির কথা বলে পুলিশকে ডেকে নিয়েছিল।