সুষ্ঠু নির্বাচন দেশপ্রেমের অভিব্যক্তি: মাহবুব|121295|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৪:৩৫
সুষ্ঠু নির্বাচন দেশপ্রেমের অভিব্যক্তি: মাহবুব
নিজস্ব প্রতিবেদক

সুষ্ঠু নির্বাচন দেশপ্রেমের অভিব্যক্তি: মাহবুব

গণতন্ত্রের জন্য বাংলাদেশের জন্ম হয়েছিল উল্লেখ করে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বলেছেন, সুষ্ঠু নির্বাচন দেশপ্রেমের অভিব্যক্তি।

আগারগাঁওস্থ ইটিআই ভবনে মঙ্গলবার রিটার্নিং অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের ব্রিফিং অনুষ্ঠানে এ আহ্বান জানান তিনি।

ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র পদে উপনির্বাচন, উত্তর ও দক্ষিণ সিটির নবগঠিত ৩৬টি ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে নির্বাচন এবং উত্তর সিটির ৯ ও ২১নং সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলরের শূন্য পদে নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করবেন এসব কর্মকর্তা।

মাহবুব তালুকদার বলেন, “বাংলাদেশের জন্ম হয়েছিল গণতন্ত্র ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার জন্য। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার মূল ভিত্তি হলো নির্বাচন। সরকার ও স্থানীয় সরকার পরিচালনার স্তরে স্তরে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে দেশ পরিচালিত হয়।”

কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, “রাষ্ট্রের বিভিন্ন স্তরে যারা দেশ পরিচালনা করবেন, নির্বাচনের মাধ্যমে তাদের বেছে নেওয়ার প্রক্রিয়ায় আপনারা বিশেষ দায়িত্ব পালন করছেন। এ দায়িত্বটি অত্যন্ত গৌরবজনক। নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় আপনারা আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত করবেন।”

এসময় মাহবুব তালুকদার বলেন, “নির্বাচন আইনানুগ হতে হবে কথাটা ব্যাখ্যার অবকাশ রাখে। আইন যদি সবার জন্য সমান না হয়, আইন যদি সবার প্রতি সম-অধিকারের আচরণ ও সম-নিশ্চয়তা না দেয় তাহলে সে আইন আইন নয়, কালো আইন। আপনারা আইনের পরিপালক, কালো আইনের নয়।”

তিনি বলেন, “নির্বাচনে আচরণবিধি দৃঢ়ভাবে কার্যকর করা, আচরণবিধি ভঙ্গকারীদের শাস্তি দেওয়া, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহযোগে শান্তি ও শৃঙ্খলা বজায় রাখা, এমনকি অভিযুক্ত আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারীদের বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ আপনাদের দায়িত্ব।”

এই নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘একটা কথা আমি গুরুত্বের সঙ্গে বলতে চাই- সুষ্ঠু নির্বাচন আমাদের দেশপ্রেমের অভিব্যক্তি। প্রতিটি নির্বাচনকে আইনানুগ সুষ্ঠু ও শুদ্ধভাবে সম্পন্ন করে দেশের প্রতি আমাদের ভালোবাসার প্রকাশ সমুন্নত রাখতে চাই। তাই কোনো নির্বাচনেই শিথিলতা প্রদর্শনের সুযোগ নেই।”

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা উদ্ধৃত করে তিনি বলেন, “বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটবৃন্দের বিচারিক সক্ষমতার প্রতি আমাদের আস্থা আছে। রবীন্দ্রনাথ বলেছিলেন- ‘বিচারের বাণী নীরবে নিভৃতে কাঁদে’। এই হতাশাব্যঞ্জক উক্তি থেকে বেরিয়ে এসে দৃশ্যমান বিচারের মাধ্যমে সেই কান্না আপনারা মুছিয়ে দেবেন- এটাই জনপ্রত্যাশা।”

ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদাসহ অন্য কমিশনাররাও উপস্থিত ছিলেন।