পলান সরকারের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক|126501|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১ মার্চ, ২০১৯ ১৯:২১
পলান সরকারের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক
নিজস্ব প্রতিবেদক

পলান সরকারের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক

একুশে পদক জয়ী পলান সরকারের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার আলাদা শোকবার্তায় দেশে বই পড়ার আন্দোলন গড়ে তুলতে পলান সরকারের অবদানের কথা স্মরণ করেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী। মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান তারা।

অপর এক শোক বার্তায় পলান সরকারের মৃত্যুতে গভীর দুঃখ প্রকাশ করেছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। তিনি বলেন, পলান সরকারের মৃত্যুতে জাতি একজন বিশিষ্ট সমাজকর্মী হারাল। আমার নির্বাচনী এলাকার বাসিন্দা পলান সরকার রাজশাহীর ২০টি গ্রামজুড়ে গড়ে তুলেছিলেন অভিনব শিক্ষা আন্দোলন এবং নিজের টাকায় বই কিনে পড়তে দিতেন পিছিয়ে পড়া গ্রামের মানুষকে।

পলান সরকারের অবদান রাজশাহীর মানুষসহ বাঙালি জাতি চিরদিন স্মরণ রাখবে বলে শোক বার্তায় আশা প্রকাশ করেন প্রতিমন্ত্রী।

নিজের টাকায় বই কিনে পাঠকের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিয়ে সারা দেশে পরিচিতি পাওয়া পলান সরকার আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার বাউশার নিজ বাড়িতে শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯৮ বছর।

পলান সরকারের প্রকৃত নাম হারেজ উদ্দিন, জন্ম ১৯২১ সালে। জন্মের মাত্র পাঁচ মাসের মাথায় তার বাবা মারা যান। আর্থিক অনটনের কারণে ষষ্ঠ শ্রেণিতে লেখাপড়ায় ইতি টানতে হয় তাকে।

স্থানীয় একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা পরিষদের সভাপতি ছিলেন পলান সরকার। প্রতিবছর স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে যারা ১ থেকে ১০-এর মধ্যে মেধা তালিকায় স্থান পাবে, তাদের তিনি একটি করে বই উপহার দিতেন। এখান থেকেই শুরু হয় তার বই বিলির অভিযান। একটানা ৩০ বছরের বেশি সময় ধরে করেছেন এই কাজ।

বই পড়ার আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য পলান সরকার ২০১১ সালে একুশে পদক পান।