আকাশে চাকা ফেটে শাহজালালে জরুরি অবতরণ, যাত্রীরা নিরাপদে|126504|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১ মার্চ, ২০১৯ ২০:১২
আকাশে চাকা ফেটে শাহজালালে জরুরি অবতরণ, যাত্রীরা নিরাপদে
নিজস্ব প্রতিবেদক

আকাশে চাকা ফেটে শাহজালালে জরুরি অবতরণ, যাত্রীরা নিরাপদে

সিলেট থেকে উড্ডয়নের সময় চাকা ফেটে গেলে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করেছে বাংলাদেশ বিমানের একটি উড়োজাহাজ। তবে এতে কোনো হতাহত ও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

শুক্রবার সিলেট থেকে ঢাকাগামী এই ফ্লাইট(বিজি ৪০২) ড্যাশ-৮ উড়োজাহাজটির পেছনের চাকা ফেটে যাওয়ায় পাইলট হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করতে বাধ্য হন।

বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও ক্যাপ্টেন মোসাদ্দিক আহমেদ দেশ রূপান্তরকে বলেন, উড়োজাহাজটির সব যাত্রী নিরাপদে বের হয়ে এসেছেন। কারওর কোন অভিযোগ নেই।

বিমান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, শুক্রবার বিকেল সোয়া তিনটার দিকে ৬১ জন যাত্রী নিয়ে সিলেটের ওসমানি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয় বিমানটি। উড্ডয়নের সময় বিকট শব্দে পাইলট নিশ্চিত হন পেছনের একটি একটি চাকা ফেটে গেছে। এতে তিনি আর সিলেট না ফিরে গিয়ে ঢাকায় এসে অবতরণ করার সিদ্ধান্ত নেন। রাডারের সঙ্গে যোগাযোগ করে ফ্লাইটকে জরুরি অবতরণের সব ধরনের প্রস্তুতি নেন পাইলট। বিমানের প্রকৌশল শাখা ও দমকল ইউনিট প্রয়োজনীয় কর্মীদের সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় রাখেন। এ জন্য কিছু সময়ের জন্য এয়ারপোর্টে সব ধরনের ফ্লাইট ওঠানামা বন্ধ রাখা হয়।

সিভিল অ্যাভিয়েশন টাওয়ার জানিয়েছে, সিলেট থেকে উড্ডয়নের সময় পেছনের বাম পাশে ভেতরের চাকার টায়ার ফেটে যায়। উড়োজাহাজটি শাহজালালে তিনটা ২৫ মিনিটে অবতরণের জন্য সময় নির্ধারিত ছিল। তবে চাকা ফেটে যাওয়ায় বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণের প্রস্তুতি নিতে উড়োজাহাজটিকে আকাশে রাখা হয়। বিকেল চারটায় বিমানটি শাহজালালে নিরাপদে অবতরণ করে। উড়োজাহাজে পাইলটসহ পাঁচজন ক্রু ছিলেন। যাত্রীরা নিরাপদে উড়োজাহাজ থেকে নেমে আসেন। পরে উড়োজাহাজটি মেরামতের জন্য পাঁচটা চার মিনিটের দিকে বিমানের হ্যাঙ্গারে নেওয়া হয়েছে।

এই বিষয়ে কন্ট্রোল টাওয়ারের উপপরিচালক ওয়াহিদুর রহমান বলেন, অবতরণের সময় যাতে কোনও দুর্ঘটনা না ঘটে, সেজন্য আমাদের প্রস্তুতি ছিল। নিরাপদে বিমানটি অবতরণ করেছে।

বিমানের জিএম (এয়ারপোর্ট) নুরুল ইসলাম হাওলাদার জানান, বিকেল চারটার দিকে সবার উপস্থিতিতে ওই ফ্লাইটটি বেশ ঝুঁকির মাঝেই অবতরণ করতে সক্ষম হন। এ সময় উড়োজাহাজটিতে ব্যাপক ঝাঁকুনির শিকার হয় বলে একজন যাত্রী জানিয়েছেন।

প্রকৌশল শাখার এক কর্মকর্তা দেশ রূপান্তরকে বলেন, ফাটা চাকা নিয়ে অবতরণ করার সময় পেছনের গিয়ারের মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে যা ঠিক করা সময় ও ব্যয় সাপেক্ষ। ঠিকমতো রক্ষণাবেক্ষণ না হওয়ায় কদিন পর পরই এ ধরনের চাকা ফাটার ঘটনা ঘটছে।