চলতি বছরেই বাস উপযোগী হবে পূর্বাচল স্যাটেলাইট সিটি|128331|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১০ মার্চ, ২০১৯ ০০:০৪
চলতি বছরেই বাস উপযোগী হবে পূর্বাচল স্যাটেলাইট সিটি
নিজস্ব প্রতিবেদক

চলতি বছরেই বাস উপযোগী হবে পূর্বাচল স্যাটেলাইট সিটি

চলতি বছরেই পূর্বাচল স্যাটেলাইট সিটি বসবাসের উপযোগী একটি আবাসন এলাকা হিসেবে পরিচিতি পাবে বলে জানিয়েছেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। তিনি বলেন, ‘২০১৯ সালের মধ্যে বরাদ্দ প্রাপ্তরা সকল নাগরিক সুবিধাসহ এখানে বসবাস করতে পারবেন। সেভাবেই আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।’

শনিবার ‘পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্প’ পরিদর্শনকালে মন্ত্রী সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। উন্নত রাষ্ট্রের আদলে পূর্বাচল নগরী গড়ে তোলা হচ্ছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘কোথাও যাতে পানি আটকে না থাকে, বর্জ্য আটকে না থাকে, সব পরিকল্পনা মাথায় নিয়ে পূর্বাচলে কাজ চলছে। পরিবেশ সম্মত আধুনিক নগর করার জন্য যা যা দরকার সবকিছুই করা হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘যেন তেন উপায়ে কাজ আটকে রাখা যাবে না। প্রকল্প বিলম্বিত করা যাবে না। প্রকল্পের ব্যয় বাড়ানো হবে না। এটা সরকারি সিদ্ধান্ত। সে লক্ষ্যেই আমি নিজে মাঠে এসেছি।’

মন্ত্রী বলেন, ‘পূর্বাচল এলাকায় বেশ কিছু মামলা ছিল। পূর্বের মালিকদের অসহযোগিতা ছিল। এখন জনপ্রতিনিধিসহ সবাই অনুধাবন করেছেন উন্নয়নের বিকল্প নাই। শেখ হাসিনা ক্ষতিপূরণও তিনগুণ করে দিয়েছেন।’ যাদের জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে তাদের ক্ষতিপূরণ পাওয়ার ক্ষেত্রে কোন সমস্যা হলে তার কাছে আসার জন্য বলেন মন্ত্রী।

গৃহায়ণ মন্ত্রী বলেন, ‘বস্তিবাসী, স্বল্প আয়ের মানুষ ও সচ্ছল সবার জন্যই আমরা কাজ করছি। কেউ আবাসহীন থাকবে না। পূর্বাচলে যাদের জমি অধিগ্রহণ করা হচ্ছে, তারা আধুনিক সকল নাগরিক সুবিধাসম্পন্ন স্যাটেলাইট টাউনের অধিবাসী হচ্ছেন। আবার ক্ষতিপূরণও পাচ্ছেন। উন্নয়নের সকল সুবিধা তাদের দেওয়া হচ্ছে।’

সরকারের সমালোচকদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, কিছু লোক আছে যারা চোখ থাকতে অন্ধ। শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়ন তাদের চোখে পড়ে না। পরিবেশবান্ধব, আধুনিক পূর্বাচল সিটি গড়ে তুলে তাদেরকে সরকারের উন্নয়ন দেখাতে চাই।

এদিন মন্ত্রী রাজধানীর কুড়িল থেকে বালু নদী পর্যন্ত ১০০ ফুট খাল খনন ও উন্নয়ন প্রকল্পের বিভিন্ন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। এ সময় তার সঙ্গে রাজউকের চেয়ারম্যান আবদুর রহমান, গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ইয়াকুব আলী পাটোয়ারিসহ প্রকল্প প‌রিচালকগণ ও অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।