পুষ্টি উন্নয়ন ও দারিদ্র্য বিমোচনে মাছ ভূমিকা রাখছে: মৎস্য প্রতিমন্ত্রী|129799|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৬ মার্চ, ২০১৯ ২১:৫২
পুষ্টি উন্নয়ন ও দারিদ্র্য বিমোচনে মাছ ভূমিকা রাখছে: মৎস্য প্রতিমন্ত্রী
হোসাইন সাদী, ভোলা

পুষ্টি উন্নয়ন ও  দারিদ্র্য বিমোচনে মাছ ভূমিকা রাখছে: মৎস্য প্রতিমন্ত্রী

ছবি: দেশ রূপান্তর

“কোন জাল ফেলবো না- জাটকা ইলিশ ধরবো না” এই স্লোগানকে সামনে রেখে ভোলার চরফ্যাশনে জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ-২০১৯ উদ্বোধন করেন মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু।

শনিবার ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার সামরাজ মৎস্য ঘাটে মৎস্য অধিদপ্তরের আয়োজনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভা শেষে সামরাজ ঘাট থেকে প্রায় কয়েক শত মাছ ধরার ট্রলার নিয়ে নৌ-র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়।

মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. রইছউল আলম মণ্ডলের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভোলা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মৎস্য অধিদপ্তরের  মহা পরিচালক আবু সাইদ মো. রাশেদুল হক। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ভোলা জেলা প্রশাসক মো. মাসুদ আলম ছিদ্দিক, নৌ-পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. মাহবুবুর রহমান, ভোলা পুলিশ সুপার মো. মোকতার হোসেন পিপিএম সেবা।

এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু বলেন- বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের মৎসখাতের গুরুত্ব অপরিসীম। এ দেশের ক্রমবর্ধমান জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থান, খাদ্য নিরাপত্তা, পুষ্টি উন্নয়ন, দারিদ্র্য বিমোচনে এবং বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে  মৎসখাতে অসামান্য অবদান রাখছে। তাই মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে সবাইকে সচেতন গড়ে তুলতে হবে। মাছ আমাদের দেশের সম্পদ। বড় ইলিশ রপ্তানি করে সরকার পর্যাপ্ত পরিমাণ টাকা আয় করে। যার ফলে  দেশ অর্থনৈতিক স্বাবলম্বী হচ্ছে। তাই নিষিদ্ধ জাল দিয়ে মাছ ধরা বন্ধ করতে হবে বলে জানান।

আলোচনা সভা শেষে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু ও ভোলা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব কয়েক শতাধিক মাছ ধরার ট্রলারে নিয়ে মেঘনা নদীতে সামরাজ ঘাট থেকে বেতুয়া ঘাট পর্যন্ত  একটি বর্ণাঢ্য  নৌ- র‌্যালিতে অংশ নেয়। এ সময় নদীর তীরে হাজার মানুষ তাদের অভিবাদন জানায়।