দক্ষিণের দেশগুলোর মন্ত্রী পর্যায়ের ফোরাম প্রতিষ্ঠার প্রস্তাব বাংলাদেশের |131003|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২২ মার্চ, ২০১৯ ০১:২০
দক্ষিণের দেশগুলোর মন্ত্রী পর্যায়ের ফোরাম প্রতিষ্ঠার প্রস্তাব বাংলাদেশের
অনলাইন ডেস্ক

দক্ষিণের দেশগুলোর মন্ত্রী পর্যায়ের ফোরাম প্রতিষ্ঠার প্রস্তাব বাংলাদেশের

ছবি: বাসস

জাতিসংঘের দক্ষিণ-দক্ষিণ সহযোগিতা বিষয়ক ২য় উচ্চ পর্যায়ের সম্মেলনে অংশ নিয়ে দক্ষিণের দেশগুলোর জন্য একটি মন্ত্রী পর্যায়ের ফোরাম এবং ‘দক্ষিণ-দক্ষিণ জ্ঞান ও উদ্ভাবনী কেন্দ্র’ প্রতিষ্ঠার প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ।

আর্জেন্টিনার বুয়েন্স আয়ারস্-এ অনুষ্ঠিত সম্মেলনের দেশ পর্যায়ের বক্তৃতায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এই প্রস্তাব দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার ঢাকায় প্রাপ্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন ‘এজেন্ডা ২০৩০ বাস্তবায়নে দক্ষিণ-দক্ষিণ সহযোগিতাকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে বাংলাদেশ’।

এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘আমরা স্মরণ করিয়ে দিতে চাই ২০১৫ সালের মে মাসে রাজধানী ঢাকায় প্রযুক্তি হস্তান্তর এবং দক্ষিণের উন্নয়নে বিনিয়োগ সংক্রান্ত সাউথ-সাউথ অ্যান্ড ট্রায়াঙ্গুলার কো-অপারেশনের উচ্চ পর্যায়ের সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার আগেই বাংলাদেশ এজেন্ডা ২০৩০ বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে দক্ষিণ-দক্ষিণ সহযোগিতার গুরুত্বের কথা উল্লেখ করেছিল।’

‘দক্ষিণ-দক্ষিণ সহযোগিতা’কে শক্তিশালী ও পুনরুজ্জীবিত করার লক্ষ্যে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ দক্ষিণ-দক্ষিণ সহযোগিতা বিষয়ক ২য় উচ্চ পর্যায়ের এই সম্মেলন আহ্বান করে।

১৯৭৮ সালে আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েনস আয়ারস্ এ অনুষ্ঠিত ‘বুয়েনস আয়ারস্ প্লান অব অ্যাকশন (বাপা)’ গৃহীত হওয়ার চল্লিশ বছর পূর্তির কথা মাথায় রেখেই সাধারণ পরিষদ এবারের এই সম্মেলন অনুষ্ঠান এখানে আয়োজন করেছে।
বাপা+৪০ এর লক্ষ্য হচ্ছে উন্নয়নশীল দেশগুলোর মধ্যে কারিগরি সহযোগিতার বাস্তবায়নকে এগিয়ে নেওয়া। ২০ মার্চ শুরু হওয়া উচ্চ পর্যায়ের সম্মেলনের স্বাগতিক দেশ আর্জেন্টিনা। এটি ২২ মার্চ শেষ হবে।

বাংলাদেশ এ সম্মেলনে ভাইস-প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন সম্মেলনটির উচ্চ পর্যায়ের প্লেনারিতে কিছু সময়ের জন্য সভাপতির দায়িত্বও পালন করেন।