সীমান্তে বিজিবি আর গরু চেক করবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী|134011|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৪ এপ্রিল, ২০১৯ ১৮:৫৮
সীমান্তে বিজিবি আর গরু চেক করবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
নিজস্ব প্রতিবেদক

সীমান্তে বিজিবি আর গরু চেক করবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

এখন থেকে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) কোনো সদস্য রাস্তা-ঘাটে গরু চেক করবে না, কারো গোয়াল ঘর বা উঠানে গিয়ে ভারতীয় গরু খুঁজবে না বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় বিজিবি সদর দপ্তরের দরবার হলে সীমান্ত এলাকায় ‘বিদ্যমান সমস্যা ও করণীয়’ শীর্ষক মতবিনিময় সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব বলেন ।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  বলেন,  ঠাকুরগাঁওয়ে গ্রামবাসীর সঙ্গে বিজিবির সংঘর্ষের সময় যে তিন গ্রামবাসী নিহত হয়, তার প্রেক্ষিতে এ সিদ্ধান্ত হয়েছে। বিজিবি সীমান্ত পাহারা দেবে। সেখানে ৫০০ গজের মধ্যে কেউ না গেলেই হলো। এই পরিধি প্রয়োজনে আরো একটু বাড়িয়ে দেওয়া হবে। বিজিবি সীমান্তে চোরাচালান রোধে কাজ করবে।

বিজিবির গুলিতে গ্রামবাসীর নিহতের ঘটনার তদন্ত বিষয়ে মন্ত্রী বলেছেন, এই ঘটনায় বেশ কয়েকটি তদন্ত কমিটি হয়েছিল। বিজিবি নিজেও ঘটনাটি তদন্ত করছে। এ বিষয়ে মামলা হয়েছে।কিছু প্রতিবেদন আমরা হাতে পেয়েছি আর কিছু এখনো হাতে আসেনি। সব প্রতিবেদন একসঙ্গে এলে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সীমান্তে হত্যা বিষয়ে তিনি বলেন, অতি উৎসাহিত কিছু লোক বর্ডার পার হয়ে চলে যায়। যার ফলে কিছু গুলির ঘটনা ঘটে এবং হত্যা হয়। সেটি নিয়ে কাজ করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, মাদকের সঙ্গে যে জড়িত থাকুক না কেন প্রমাণ পেলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়। বিজিবির বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হয়। হয়তো সেটা বাইরে প্রকাশ পায় না। কারণ বিজিবির নিজস্ব একটি আইন আছে, সেই আইনেই তাদের বিচার হয়ে থাকে।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, বিজিবি সোচ্চার আছে। আগের চেয়ে এখন অনেক বেশি সচেষ্ট রয়েছে। অচিরেই থার্মাল সেন্সর বসানো হবে। যাতে করে সীমান্ত দিয়ে কেউ অস্ত্র নিয়ে দেশে প্রবেশ করতে না পারে।

আরেক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, দেশের কোথাও কোনো ক্রসফায়ার হচ্ছে না। আমাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা মাদকের সন্ধান পেয়ে উদ্ধার করতে গেলে মাদক কারবারিরা অবৈধ অস্ত্র দিয়ে গুলি চালায়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাও গুলি চালায়। তখন তারা বন্দুকযুদ্ধে মারা যায়।

বিজিবির একাধিক কর্মকর্তা জানান, দুপুর ১২টা  বেলা ২টা পর্যন্ত বিজিবির দরবার হলে মতবিনিময় সভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালসহ সীমান্তবর্তী ৩২ জেলার বিভিন্ন জনপ্রতিনিধি ও বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের বর্তমান ও সাবেক মন্ত্রী, পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব, কোস্টগার্ড ও মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।