ঝুঁকিতে বাংলাদেশের ২ কোটি শিশু|134199|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৫ এপ্রিল, ২০১৯ ১২:২৩
ঝুঁকিতে বাংলাদেশের ২ কোটি শিশু
অনলাইন ডেস্ক

ঝুঁকিতে বাংলাদেশের ২ কোটি শিশু

জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ঝুঁকিতে আছে বাংলাদেশের এক কোটি ৯০ লাখ শিশু। শুক্রবার জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ এক প্রতিবেদনে এমনটা জানিয়েছে।

আলজাজিরা জানায়, যদিও জলবায়ু স্থিতিশীলতা রক্ষায় দক্ষিণ এশিয়ার দেশটির উন্নতি ঘটেছে, কিন্তু সমতল ভূমি বৈশিষ্ট্য, ঘনবসতি এবং দুর্বল অবকাঠামোর কারণে বন্যা, ঘূর্ণিঝড় এবং পরিবেশগত আরও বিপর্যয়ের মুখে এ অবস্থানকে দুর্বল করে দিয়েছে।

ইউনিসেফ জানায়, ১৬ কোটি জনসংখ্যার বাংলাদেশে শিশু হচ্ছে ৪০ শতাংশ। এ পরিসংখ্যানে যুক্ত করা হয়েছে রোহিঙ্গা শিশুরাও। কক্সবাজারের টেকনাফে প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থীর মধ্যে বিশাল একটি অংশও শিশু।

‘অ্যা গ্যাদারিং স্ট্রোম: ক্লাইমেট চেঞ্জ ক্লাউড দ্য ফিউচার অব চিলড্রেন ইন বাংলাদেশ’ নামে প্রতিবেদনটিতে ইউনিসেফ জানায়, শুধু নদীভাঙন ও নদী প্রবাহের কারণে সৃষ্ট বন্যায় ঝুঁকির মুখে আছে এক কোটি ২০ লাখ শিশু।

প্রতিবেদনের গবেষক সিমন ইনগ্রাম বলেন, বন্যা থেকে বিপদটা ভয়াবহ। কারণ প্রায় বছরেই বন্যা দেখা দিচ্ছে। দেশটিতে সর্বশেষ বড় বন্যার সৃষ্টি হয় ২০১৭ সালে। এ দুর্যোগের ফলে ৮০ লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

তিনি বলেন,  ব্রহ্মপুত্র নদীর ভাঙন ও বন্যার পানিতে ক্ষতিগ্রস্ত হয় ৪৮০ কমিউনিটি স্বাস্থ্য কেন্দ্র এবং নষ্ট হয়ে যায় ৫০ হাজার জলাশয়, যেখান থেকে মানুষ নিরাপদ পানির চাহিদা মেটাতো।

ইনগ্রামের মতে, শুধু ঘর থেকে বের করে দিলেই একটি পরিবার বাস্তুহারা হয় না, স্বাস্থ্যসেবা, নিরাপদ পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থা ধ্বংস হয়ে গেলেও এ প্রভাব তাদের ওপর পড়ে। বাস্তুচ্যুত হওয়া পরিবারের শিশুরা পুষ্টি থেকে বঞ্চিত হচ্ছে, সেইসঙ্গে শিক্ষা থেকেও। তারা বাধ্য হয়ে শ্রমে যুক্ত হচ্ছে।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, উপকূলে বাস করা পরিবারের মধ্যে ৪ লাখ ৫০ হাজার শিশু নিয়মিত ঘূর্ণিঝড়ের ঝুঁকিতে আছে। ভূমির অভ্যন্তরে ৩০ লাখের মতো শিশু খরায় খাদ্যভাবে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে আছে।