পহেলা বৈশাখে কোন নিরাপত্তা ঝুঁকি নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী|136068|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৩ এপ্রিল, ২০১৯ ১৯:০১
পহেলা বৈশাখে কোন নিরাপত্তা ঝুঁকি নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
নিজস্ব প্রতিবেদক

পহেলা বৈশাখে কোন নিরাপত্তা ঝুঁকি নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

পহেলা বৈশাখের বর্ষবরণ অনুষ্ঠান পালনে নিরাপত্তার কোন ঝুঁকি নেই উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, তারপরও সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় থাকবে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী।

তিনি বলেন, বাংলা নববর্ষ আমাদের সংস্কৃতির বড় অংশ। কেউ উসকানি দিয়ে নাশকতার চেষ্টা করলে, জনগণই তা প্রতিহত করবে। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ছাড়ানো গুজব ও প্রোপাগান্ডা প্রতিরোধে প্রস্তুত রয়েছে ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি ইউনিট।

পহেলা বৈশাখে ঢাকা সহ সারা দেশে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে উল্লেখ করে  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, যে কোন পরিস্থিতি মোকাবিলায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী প্রস্তুত রয়েছে।

শনিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে রমনা বটমূল ও পার্ক কেন্দ্রিক নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ শেষে সাংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “ক্রিমিনালরা নানাভাবে মেধা প্রয়োগ করবেই। তবে সেভাবে নিরাপত্তা বাহিনীকে তৈরি করেছি আমরা। যে কোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় তারা প্রস্তুত। আয়োজন নিয়ে কোনো আশঙ্কা নেই।”

তিনি আরও বলেন, ‘প্রতিবারের মতন সারা বাংলাদেশের জনগণ এই উৎসব পালন করবে। এটি জাতীয় উৎসবে পরিণত হয়েছে। কোণ ধরনের অরাজক পরিস্থিতি যেন সৃষ্টি না হয় সে জন্যই আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী, গোয়েন্দা বাহিনী সবাই প্রস্তুত রয়েছে। আমরা পুলিশ বাহিনীর সক্ষমতা বৃদ্ধি করেছি, যে কোণ চ্যালেঞ্জ এখন তারা মোকাবিলা করতে পারবে। নিরাপত্তার খাতিরে তাদের যা যা প্রয়োজন সবই ব্যবস্থা করেছি।’

মন্ত্রী বলেন, ঢাকার বিভিন্ন জায়গা সিসিটিভি ক্যামেরার আওতায় এনেছি। আর্চওয়ে স্থাপন করেছি। মঙ্গল শোভাযাত্রার শুরু স্থানের জন্য বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে ফায়ার সার্ভিস, মেডিকেল টিমসহ যা যা প্রয়োজন সবই প্রস্তুত থাকবে। উৎসব উদ্‌যাপনে কোনো ধরনের অসুবিধা হবে না। পুলিশ, র‌্যাবসহ নিরাপত্তা বাহিনী সতর্ক রয়েছে। কেউ নাশকতামূলক পরিস্থিতি তৈরি করতে চাইলে তাদের উদ্দেশ্য সফল হবে না।

এ সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন পুলিশ মহাপরিদর্শক মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া প্রমুখ।

এর আগে সকাল ১১টার দিকে রমনা পার্কে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সোয়াট, বোম্ব ডিসপোজাল ও ডগ স্কোয়াড ইউনিটের সমন্বয়ে একটি নিরাপত্তা মহড়া অনুষ্ঠিত হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহড়াটি পরিদর্শন করেন।