ভোটার কম হলেও স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন নেই: সিইসি|137981|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৩ এপ্রিল, ২০১৯ ১৭:৩৫
ভোটার কম হলেও স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন নেই: সিইসি
রাজবাড়ী প্রতিনিধি

ভোটার কম হলেও স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন নেই: সিইসি

রাজবাড়ী জেলা প্রশাসন কার্যালয়ে বক্তব্য রাখছেন সিইসি কে এম নূরুল হুদা।

উপজেলা নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি কম থাকলেও স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন নেই বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা।

তিনি বলেছেন, জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৯৯ শতাংশ ভোট পড়লেও উপজেলা পরিষদে বড় রাজনৈতিক দল বিএনপি অংশ না নেয়ায় ভোটার উপস্থিতি কম। তবে এই নির্বাচনের স্বচ্ছতা নিয়ে কেউ প্রশ্ন তুলতে পারেনি।

মঙ্গলবার  দুপর সাড়ে ১২টার দিকে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে রাজবাড়ী সদর উপজেলার ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসূচি ২০১৯ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা এসব বলেন।

তিনি বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জাতীয় প্রতীক ব্যবহারের সিদ্ধান্ত রাজনৈতিক দলের, নির্বাচন কমিশনের নয়।

মিয়ানমার থেকে বিতাড়িত হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের ভোটার হওয়া বিষয়ে সিইসি বলেন, রোহিঙ্গারা দেশে প্রবেশের পর তাদের সব আঙুলের ছাপ পুলিশ প্রশাসন নিয়ে রেখেছে। এগুলো সংরক্ষণ করা আছে। যে কারণে রোহিঙ্গাদের ভোটার হওয়ার কোনো সুযোগ নাই।

তিনি বলেন, একজন ব্যক্তি একবারই ভোটার হতে পারবেন। আর ভুল তথ্য বা আঙুলের ছাপ দিয়ে দ্বিতীয়বার কেউ ভোটার হতে পারবে না। আগে এক ব্যক্তি একাধিক জায়গায় ভোটার হতে পারত, কিন্তু এখন সে সুযোগ নাই। এখন সব বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে তালিকা তৈরি হচ্ছে।

‘সুতরাং নিজের পরিচয় গোপন রেখে একাধিক জায়গায় ভোটার হওয়ার সুযোগ নাই’।

রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক মো. শওকত আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফরিদপুরের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নুরুজ্জামান তালুকদার। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজবাড়ী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফকীর আব্দুল জব্বার, পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলি বিপিএম, সিভিল সার্জন ডা. মো. রহিম বকস, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ হাবিবুর রহমানসহ বিভিন্ন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, পৌরসভার মেয়রসহ ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসূচি বাস্তবায়ন-সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

সভায় বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা, সাংবাদিক, রাজনৈতিক নেতা ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।