logo
আপডেট : ২৭ এপ্রিল, ২০১৯ ১৪:৩২
বাঙালি জাতির উন্মেষ শেরে বাংলার হাত ধরে: মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী
নিজস্ব প্রতিবেদক

বাঙালি জাতির উন্মেষ শেরে বাংলার হাত ধরে:  মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী  আ. ক. ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, শেরে বাংলা এ. কে. ফজলুল হকের হাতেই বাঙালি জাতির উন্মেষ হয়েছে। তার সুযোগ্য নেতৃত্ব বাঙালি জাতিকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে শিখিয়েছে। বাঙালি জাতির মুক্তির জন্য শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হক, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী এবং তাদের স্নেহধন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভূমিকা ইতিহাসে অমর হয়ে থাকবে। ব্রিটিশ আমলে মুসলমানদের প্রতি বিমাতাসুলভ আচরণ করা হতো। এ সকল প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে শেরে বাংলা আজীবন সংগ্রাম করেছেন।

শনিবার সকালে শেরে বাংলার মাজারে জাতীয় নেতা শেরে বাংলা এ. কে. ফজলুল হকের ৫৭তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তার কর্মময় জীবনের ওপর আলোচনা, মাজারে পুষ্পমাল্য অর্পণ ও মাজার জিয়ারত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, “শেরে বাংলা আজীবন গরিব, দুঃখী ও মেহনতি মানুষের কল্যাণে কাজ করেছেন। মানুষের প্রতি তার ভালোবাসা ছিল গভীর। তিনি অত্যন্ত মেধাবী ছিলেন, একাধারে তিনি সর্বভারতীয় কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক আবার মুসলিম লীগের সভাপতির দায়িত্বও পালন করেন।”

এ কে ফজলুল হক লাহোর প্রস্তাব উত্থাপন করে ইতিহাসে অমর হয়ে আছেন উল্লেখ করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, জমিদারদের হাত থেকে গরিব ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষদের বাঁচানোর জন্য তিনি ঋণ সালিশি বোর্ড গঠন করেন। স্বাধীন বাংলাদেশ কায়েম করার জন্য তিনি অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছেন। তিনি একজন উঁচু মানের আইনজীবী ছিলেন। আইন পেশার আয়ের অধিকাংশই অসহায় মানুষের জন্য ব্যয় করেছেন।”

বিশ্ব বাঙালি সম্মেলনের সভাপতি কবি মুহম্মদ আবদুল খালেকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাবেক মন্ত্রী এবং অন্যতম সংবিধান প্রণেতা ব্যারিস্টার এম আমিরুল ইসলাম। শেরে বাংলার দৌহিত্র এ. কে. ফাইয়াজুল হক রাজুসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ  উপস্থিত ছিলেন।