আইন অনুযায়ী কেরানীগঞ্জে আদালত স্থাপন করা হয়েছে : তথ্যমন্ত্রী|144338|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৩ মে, ২০১৯ ০০:০৬
আইন অনুযায়ী কেরানীগঞ্জে আদালত স্থাপন করা হয়েছে : তথ্যমন্ত্রী
অনলাইন ডেস্ক

আইন অনুযায়ী কেরানীগঞ্জে আদালত স্থাপন করা হয়েছে : তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়ার সুবিধার্থেই সরকার আইন ও বিধান অনুযায়ী কেরানীগঞ্জে আদালত স্থাপন করেছে।

বুধবার প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ (পিআইবি)তে পিআইবি-এটুআই গণমাধ্যম পুরস্কার-২০১৮ প্রদান অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সরকার আইন ও বিধান অনুযায়ী যেকোনো জায়গায় আদালত স্থাপন করতে পারে এবং সরকারের দায়িত্ব হচ্ছে আইন ও আদালতকে সহযোগিতা করা। যেহেতু বিএনপি দাবি করছে বেগম জিয়া অসুস্থ এবং তার আর্থাইটিজের পুরনো কিছু সমস্যা রয়েছে। এসব সমস্যা নিয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেছেন। তার সুবিধার্থেই কেরানীগঞ্জে আদালত স্থাপন করা হয়েছে। সরকারের দায়িত্ব হচ্ছে বিচারকার্যে সহযোগিতা করা। আইনি প্রক্রিয়াকে সহায়তা করার জন্য এবং একই সাথে বেগম খালেদা জিয়ার সুবিধার্থে এটি স্থাপন করা হয়েছে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এখানে সংবিধানের কোন বিষয় নেই, আদালত স্থাপন করা, আর বিচারকার্য পরিচালনা করা দুটি ভিন্ন বিষয়। বিচারক সেখানে বিচারিক প্রক্রিয়ায় বিচারান্তে কি করবেন এটা বিচারালয়ের বিষয়, কিন্তু বেগম জিয়ার সুবিধার্থেই সেখানে আদালত স্থাপন করা হয়েছে, তাকে আর অনেক দূরে আদালতে আনতে হবে না, তার শারীরিক কষ্ট লাঘব হবে। এতে তো বিএনপির খুশি হওয়ারই কথা।’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আইনি প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে কোন রাজনৈতিক দলের চাওয়া-পাওয়ার বিষয় থাকতে পারে না। এ ক্ষেত্রে আদালতের সুবিধার বিষয়টিই হচ্ছে মুখ্য। একই সাথে যিনি আসামি তার সুবিধার বিষয়টিও বিবেচনায় নিতে পারে।

খুলনা পাটকল শ্রমিকদের বিষয়ে খুলনার এক নেতার সাথে বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভীর ফোনালাপ ফাঁস হওয়া বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘বিএনপি আগেও অনেক নাশকতা করেছে, বাংলাদেশের মানুষের উপর পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে শত শত মানুষ হত্যা করেছে, হাজার হাজার মানুষকে আগুনে ঝলসে দিয়েছে, হাজার হাজার কোটি টাকার সরকারি এবং বেসরকারি সম্পত্তি ক্ষতি করেছে। এখন নিজেদের আন্দোলন করার সামর্থ্য নেই, অন্যরা যখন আন্দোলন করে সেখানে তারা টাকা পয়সা দিয়ে সেটিকে বিভ্রান্ত ও নাশকতামূলক কার্যক্রম করার জন্য প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। তাদের এ ধরনের কার্যক্রম অতীতেও অনেকবার ফাঁস হয়েছে। কিন্তু তাদের চরিত্র বদলায়নি।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি ২০১৩ থেকে ২০১৫ সালে যে কার্যক্রমগুলো করেছে, তা থেকে আপাতত বিরত থাকলেও রিজভীর এই ফোনালাপের মাধ্যমেই প্রমাণিত হয় যেকোনো সময় সুযোগ পেলে তারা একই ধরনের কার্যক্রম করবে, কিংবা অন্যদের দিয়ে করাবার চেষ্টা করবে এবং করছে।

পিআইবি পরিচালনা বোর্ডের চেয়ারম্যান সাংবাদিক আবেদ খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, সম্মানিত অতিথি ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য সচিব আব্দুল মালেক, বক্তব্য রাখেন ভোরের কাগজ সম্পাদক ও জুরিবোর্ডের সদস্য শ্যামল দত্ত। স্বাগত বক্তব্য রাখেন পিআইবি’র মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ।

খবর: বাসস