পরাজয় সাপেবর ভারতের|145206|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৭ মে, ২০১৯ ০০:০০
পরাজয় সাপেবর ভারতের
ক্রীড়া ডেস্ক

পরাজয় সাপেবর ভারতের

বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ম্যাচ, তাতে নিউজিল্যান্ডের কাছে এমন হার মানায় না ভারতকে। ব্যাটিং ব্যর্থতায় অন্যতম ফেভারিটদের প্রস্তুতি একদম লেজেগোবরে হয়ে গেছে। কিন্তু বিরাট কোহলির মতে, এতে নাকি সাপেবর হয়েছে। প্রায় ম্যাচেই টপ অর্ডারদের পারফরম্যান্সের কারণে লোয়ার অর্ডাররা ব্যাট করতেই পারে না। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেই না পাওয়াটা পূরণ হয়েছে। আর কঠিন সময়ে লোয়ার অর্ডাররা লড়াই ফিরিয়েও দিতে পেরেছে। এতেই খুশি কোহলি। জানালেন, বিশ্বকাপের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রস্তুতি হয়ে গেল তাদের।

কিউইদের পেস অ্যাটাকে ১১ ওভারের মধ্যে ৪ উইকেটে ৩৯ রানে পরিণত হয় ভারত। ৮ উইকেট হারাতে হয় ১১৫ রানে। সেখান থেকে ইনিংস শেষ হয় ১৭৯ রানে। রবীন্দ্র জাদেজার হাফসেঞ্চুরি ও কুলদিপ যাদবের ছোট ইনিংসটি ভারতকে সম্মানজনক স্কোর গড়তে সাহায্য করে। ম্যাচ নিয়ে বলতে এসে তাই কোহলি এদিকটিই তুলে ধরলেন, ‘একদিক থেকে খুব ভালো হয়েছে। আমরা সবসময়ই বলাবলি করি যে বিশ্বকাপের মতো টুর্নামেন্টে কোনো এক ম্যাচে টপ অর্ডার ভেঙে পড়তে পারে। তখন লোয়ার অর্ডারদের এগিয়ে আসতে হবে। মূল ম্যাচে এমন কিছু হয়ে গেলে হঠাৎ তা সামলানো কঠিন হতো নিচের ব্যাটসম্যানদের জন্য। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেদিকটি দেখা হয়ে গেছে। হার্দিক (পান্ডিয়া) ৩০ রান করে দারুণ করেছে, এমএস (ধোনি) পরিস্থিতি সামাল দিয়েছে, আর জাদেজা তার অন্যতম সেরা ইনিংসটি খেলেছে, তার সঙ্গে কুলদিপ দারুণ সমর্থন করেছে। বলতেই হবে এই ম্যাচ থেকে আমরা অনেক কিছু বুঝতে পেরেছি যা আমাদের দেখে নেওয়া দরকার ছিল। লোয়ার অর্ডাররা রান পেয়েছে এটাই আমাদের বড় পাওয়া।’

টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। প্রথম ইনিংসে ওভালে ব্যাট করা কঠিন ছিল বলে জানালেন কোহলি। তুলনায় দ্বিতীয় ইনিংসে পিচ অনেকটাই ব্যাটসম্যানদের দিকে হাত বাড়ায়। ভারত অধিনায়ক জানান, ‘দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করার চেয়ে শুরুতে ব্যাট করা খুব কঠিন ছিল। ওদের মতো আমরাও সঠিক জায়গায় বল করেছিলাম। আমি জোর দিয়ে বলতে পারি বোলাররা তেমন ভুল করেনি। কিন্তু কিউই ইনিংসের ১৩ ওভারের পর থেকে দেখলাম পিচ খুব সহজ হয়ে যায়। ম্যাচে এমন হলে নিজেদের দিকে ফল রাখা কষ্টের।’