logo
আপডেট : ৫ জুন, ২০১৯ ১৯:৩৭
জঙ্গিবাদের অভিযোগ, অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশি তরুণীর ৪২ বছর সাজা
অনলাইন ডেস্ক

জঙ্গিবাদের অভিযোগ, অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশি তরুণীর ৪২ বছর সাজা

জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়ার অভিযোগে বাংলাদেশি তরুণী মোমেনা সোমাকে ৪২ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার আদালত।

এক ব্যক্তিকে হত্যা প্রচেষ্টার দায়ে বুধবার তাকে এ সাজা দেওয়া হয়েছে। মেলবোর্নে সুপ্রিমকোর্টের বিচারপতি লেসলি অ্যান টেইলর একে ‘ঠাণ্ডা মাথার হত্যা প্রচেষ্টা’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন। এতে করে ভিক্টোরিয়ান কারা ব্যবস্থা অনুযায়ী, সোমাকে কমপক্ষে ৩১ বছর ছয় মাস কারাগারে থাকতে হবে।

বাংলাদেশ থেকে পড়াশোনা করার জন্য অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার ৯ দিন পর গত বছরের ৯ ফেব্রুয়ারি নিউ সাউথ ওয়েলসে রজার সিংগারাভেলু নামের এক ব্যক্তিকে হত্যার উদ্দেশ্যে ছুরি নিয়ে হামলা চালায় মোমেনা সোমা। হামলার সময় তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। আহত হলেও প্রাণে বেঁচে যান রজার। 

এ ঘটনার পর তার সম্পর্কে জানার জন্য ঢাকার মিরপুরে তাদের বাড়িতে গেলে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের এক কর্মকর্তার ওপর ছুরি নিয়ে হামলা চালায় তার ছোট বোন আসমাউল হুসনা সুমনা।

তাদের বিষয়ে তদন্তের জন্য অস্ট্রেলীয় ও বাংলাদেশি পুলিশ একে-অপরকে সহযোগিতার ভিত্তিতে কাজ করতে থাকে। পরবর্তীতে অস্ট্রেলিয়ার আদালতে নিজের দোষ স্বীকার করে নেয় মোমেনা সোমা। সহিংস জিহাদের জন্য সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত হওয়ার অভিযোগে গত বছরের সেপ্টেম্বরে তাকে দোষী সাব্যস্ত করে আদালত। আর বুধবার সাজা ঘোষণা করা হয় তার বিরুদ্ধে।

মামলার শুনানিতে বলা হয়েছিল, বাংলাদেশ থেকে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার সময় একটি ছুরি নিয়ে গেছে সোমা। হামলার কয়েকদিন আগে একটি ম্যাট্রেসের ওপর বসে বসে ওই ছুরি নিয়ে অনুশীলন করতো সে। 

ঢাকায় কাউন্টার টেরোরিজম (সিটিটিসি) ইউনিটের এক কর্মকর্তাকে হামলার পর গ্রেফতার হওয়া মোমেনা সোমার ছোট বোন আসমাউল হুসনা সুমনা গত বছর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের জানিয়েছিলেন, বাংলাদেশ থেকে আইএসে যোগ দেওয়া ‘ফরেন ফাইটার’দের সঙ্গে যোগাযোগ ছিল সোমার। সে নিজেও আইএসের হয়ে যুদ্ধ করতে তুরস্ক হয়ে সিরিয়ায় যেতে চেয়েছিল। এজন্য তুরস্কের আতিলিম ইউনির্ভাসিটি থেকে স্কলারশিপও জোগাড় করেছিল। কিন্তু ঢাকার টার্কিশ অ্যাম্বাসি তাকে ভিসা দিতে অস্বীকৃতি জানানোর কারণে তার আর যাওয়া হয়নি। এরপর অস্ট্রেলিয়ার একটি ইউনিভার্সিটি থেকে স্কলারশিপ নিয়ে সেখানে গিয়ে ‘সিঙ্গেল অ্যাটাক’ করে সে।