logo
আপডেট : ২২ জুন, ২০১৯ ০০:০০
জাতীয় প্রেস ক্লাবে আমীর খসরু
খালেদার জামিনে হস্তক্ষেপের প্রমাণ মন্ত্রী এমপিদের বক্তব্য
নিজস্ব প্রতিবেদক

খালেদার জামিনে  হস্তক্ষেপের প্রমাণ মন্ত্রী  এমপিদের বক্তব্য

‘খালেদা জিয়ার জামিনে হস্তক্ষেপ করা হচ্ছে না’ বলে সরকারের মন্ত্রী-এমপিদের বারবার দেওয়া বক্তব্যই হস্তক্ষেপের প্রমাণ বলে মনে করছেন আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। গতকাল শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক অনুষ্ঠানে এ অভিমত তুলে ধরেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য। দুপুরে ‘বিচার বিভাগে রাষ্ট্রীয় হস্তক্ষেপ বন্ধ এবং বিএনপি চেয়ারপারসন  বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে’ এ যুব সমাবেশের আয়োজন করে নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরাম। প্রধান অতিথির বক্তব্যে আমীর খসরু বলেন, ‘সরকার সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার জামিনে হস্তক্ষেপ করছে। আর এ কারণেই সরকারের এমপি-মন্ত্রীরা প্রতিনিয়ত নিজেদের রক্ষা করে বলে বেড়াচ্ছেন তারা খালেদা জিয়ার জামিনে হস্তক্ষেপ করছেন না। হস্তক্ষেপ যদি নাই করে থাকেন তবে এমন প্রশ্ন আসে কেন?’

বিএনপির এই নীতিনির্ধারক আরও বলেন, ‘রাষ্ট্রের প্রতিটি অঙ্গে সরকার নগ্ন হস্তক্ষেপ করছে। সরকার তাদের ক্ষমতা স্থায়ী করার লক্ষ্যে আদালতকে ব্যবহার করে অন্যায়ভাবে খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটক রেখেছে। এ দেশের মানুষের গণদাবি খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে গণতন্ত্র ফিরে পাওয়া।’

আমীর খসরু বলেন, ‘ক্ষমতাসীন সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়নি। এটি যেমন দেশের জনগণের কাছে দিনের আলোর মতো পরিষ্কার, ঠিক তেমনি খালেদা জিয়াকে যে শুধুমাত্র রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে অন্যায়ভাবে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে সেটাও দেশের মানুষের কাছে পরিষ্কার। শুধু দেশে নয়, বিদেশি বন্ধুরা ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থার কাছেও পরিষ্কার। এ কারণে বিভিন্ন বিবৃতিতে তারা বিষয়টি তুলে ধরছেন।’

তিনি বলেন, ‘দেশের সুশীল সমাজের ওপরও নগ্ন হস্তক্ষেপ করা হচ্ছে। এ কারণে তারা কথা বলতে ভয় পাচ্ছে। কথা বললেই খুন-গুম ও হামলা-মামলায় জড়িয়ে নির্যাতন করা হচ্ছে।’

আয়োজক সংগঠনের উপদেষ্টা সাঈদ আহমেদ আসলামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এম জাহাঙ্গীর আলমের সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, সাবেরা নাজমুল, নিপুণ চন্দ্র রায় চৌধুরী, তাঁতি দলের যুগ্ম আহ্বায়ক ড. কাজী মনিরুজ্জামান মনির প্রমুখ