কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করছে সরকার: জাতিসংঘে পরিকল্পনামন্ত্রী|155131|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৫ জুলাই, ২০১৯ ০২:১১
কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করছে সরকার: জাতিসংঘে পরিকল্পনামন্ত্রী
নিজস্ব প্রতিবেদক

কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করছে সরকার: জাতিসংঘে পরিকল্পনামন্ত্রী

দেশের বেকার সমস্যা দূর করতে সরকার নতুন নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করছে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

তিনি বলেন,  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এসডিজি (টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা) অর্জনে আমরা দৃঢ়ভাবে অঙ্গীকারবদ্ধ। বর্তমানে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অর্জন দেখলেই বোঝা যায় এসডিজির লক্ষ্য অর্জনে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।

গত শনিবার নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দফতরে সিনিয়র লেভেল মিটিংয় (এসএলএম) এবং কার্যকরী উন্নয়ন সহযোগিতার গ্লোবাল পার্টনারশিপ ফর ইফেকটিভ ডেভেলপমেন্ট এর কো-চেয়ারম্যান হিসেবে উদ্বোধনী বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

শুরুতেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বাধীন এসডিজি বাস্তবায়নে বাংলাদেশের অগ্রগতি তুলে ধরেন মন্ত্রী।

অনুষ্ঠনে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জাতিসংঘে হাই-লেভেল পলিটিক্যাল ফোরাম (এইচএলপিএফ) অংশগ্রহণে স্পিকার ও পরিকল্পনামন্ত্রী নিউইয়র্কে অবস্থান করছেন।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, আমরা দেশের দারিদ্র্যের মাত্রা কমাতে সক্ষম হয়েছি, যা বর্তমানে ২১ দশমিক ৮ শতাংশ। বাংলাদেশের এ দরিদ্র্যের হার ২০০৫ সালে ছিল ৪০ শতাংশ। আমাদের সরকার বেকার সমস্য দূর করতে নতুন নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করছে। এছাড়া অসাম্য ব্যবস্থাপনা, লিঙ্গ সমতা এবং অন্তর্নিহিততা নিশ্চিত এবং উন্নয়ন সহযোগিদের সাথে কার্যকর অংশীদারিত্ব জোরদার করা হয়েছে।

২০১৬ সালে কেনিয়ার নাইরোবিতে অনুষ্ঠিত জিপিইডিসির দ্বিতীয় উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকের কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, নাইরোবি থেকে বাংলাদেশ একটি কো-চেয়ার হিসেবে জিপিইডিসির দেয়া লক্ষ্য বাস্তবায়নে কার্যকর প্ল্যাটফর্ম তৈরি করার চেষ্টা করছে। আমরা জিপিইডিসির মধ্যে বিভিন্ন ডেডিকেটেড উদ্যোগের অংশ ছিলাম। জিপিইডিসি এবং বাংলাদেশ এসডিজি অর্জনে বাংলাদেশ প্রতিশ্রুতি দিয়ে আসছে এবং এ প্ল্যাটফর্মকে সমর্থন করাতে সদস্য রাষ্ট্রগুলোর প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

এসময় বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন, বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব মনোয়ার আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।