রোহিঙ্গারা কোথায় থাকেন জানতে চাইলেন ট্রাম্প|156218|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২০ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০
রোহিঙ্গারা কোথায় থাকেন জানতে চাইলেন ট্রাম্প
প্রতিদিন ডেস্ক

রোহিঙ্গারা কোথায় থাকেন জানতে চাইলেন ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানেন না রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির কোথায়। মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর নির্যাতনের মুখে কয়েক লাখ রোহিঙ্গার শরণার্থী হিসেবে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়ার বিষয়টি তিনি জানেন না। সম্প্রতি হোয়াইট হাউজে এক প্রতিনিধিদলের সঙ্গে কথা বলার সময় এমন মন্তব্য করেন ট্রাম্প।

গত বুধবার হোয়াইট হাউজে আমন্ত্রিত চীন, তুরস্ক, উত্তর কোরিয়া, মিয়ানমারসহ ১৬টি দেশে সাম্প্রদায়িক নিপীড়নের শিকার একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে কথা বলেন ট্রাম্প। ওই দলে ছিলেন একজন রোহিঙ্গা।

ওই ব্যক্তি ট্রাম্পকে জানান, তিনি বাংলাদেশের রোহিঙ্গা শিবির থেকে গেছেন। শিবিরের বেশিরভাগ রোহিঙ্গাই নিজেদের দেশ মিয়ানমারে ফিরতে চান উল্লেখ করে ওই ব্যক্তি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের কাছে জানতে চান, তার প্রশাসন রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে কী ধরনের সহায়তার পরিকল্পনা করেছে?

উত্তরে ট্রাম্প তখন ওই রোহিঙ্গাকে প্রশ্ন করেন, ‘এটি (রোহিঙ্গাদের শরণার্থী শিবির) ঠিক কোথায়?’ জবাবে ওই রোহিঙ্গা বলেন, ‘বাংলাদেশ রোহিঙ্গা ক্যাম্প।’ তখন পাশ থেকে প্রেসিডেন্টের এক সহযোগী ট্রাম্পকে বলেন, ‘বাংলাদেশ বার্মার (মিয়ানমার) পাশেই।’

২০১৭  সালের ২৫ আগস্ট রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সহিংসতা জোরালো হওয়ার পর মিয়ানমারের সেনা কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করে যুক্তরাষ্ট্র। একই বছর পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও রোহিঙ্গা নিপীড়নকে ঘৃণ্য জাতিগত নিধনযজ্ঞ আখ্যা দেন। কাছাকাছি সময়ে রাখাইনে নিধনযজ্ঞের হোতা আখ্যা দিয়ে মং মং সো নামের এক সেনা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। ২০১৮ সালের অক্টোবরে মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয় মিয়ানমারের তিনজন সামরিক কর্মকর্তা ও দুটি সেনা ব্রিগেডের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়। সবশেষ গত মঙ্গলবার দেশটির সেনাবাহিনীর শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে ওয়াশিংটন।