বেড়েছে ইলিশের আমদানি, কমছে দর|161260|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৪ আগস্ট, ২০১৯ ১৭:৪৫
বেড়েছে ইলিশের আমদানি, কমছে দর
বরিশাল প্রতিনিধি

বেড়েছে ইলিশের আমদানি, কমছে দর

বরিশালসহ দক্ষিণাঞ্চলের মোকামগুলোতে পর্যাপ্ত ইলিশের আমদানি ঘটায় দর কমেছে। নগরীর পোর্ট রোডের একমাত্র বেসরকারি মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র বুধবার সকাল থেকেই ইলিশে সরগরম হয়ে উঠেছে।

কোরবানির ঈদের দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার সকাল থেকে দিনভর বরিশাল ইলিশ মোকামে ক্রেতা-বিক্রেতা, জেলে আর শ্রমিকদের পদচারণায় মুখর হয়ে ওঠে। ফিশিংবোট, বরফ কল থেকে শুরু করে প্যাকিং পর্যন্ত শ্রমিকরা ব্যস্ত সময় পার করছে।

বরিশাল ইলিশ মোকামের ব্যবসায়ীরা জানান, কোরবানির ঈদের ছুটিকে কেন্দ্র করে রাজধানী ঢাকা এখন ফাঁকা। তাই ঢাকায় তেমন মাছের চাহিদা নেই। আর মৌসুমের এ সময়টা এমনিতেই জেলেদের জালে প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ছে। তাই সব মিলিয়ে এখন বরিশালসহ দক্ষিণাঞ্চলের অবতরণ কেন্দ্র ও মৎস্য আড়তগুলোতে ইলিশের চাপ বেড়েছে।

পোর্ট রোডের মৎস্য ব্যবসায়ী মো. শাহাবুদ্দিন বলেন, বর্তমান সময়ে ঢাকা এবং চাঁদপুরে ইলিশের চাহিদা কমে গেছে। আবার নীচের দিকে অর্থাৎ আলীপুর-মহিপুরে ইলিশের আমদানি অত্যধিক হওয়ায় সেখানে দর পরে গেছে। ফলে সব মিলিয়ে বরিশালের মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে ছুটে আসছেন জেলেরা। মঙ্গলবার এবং বুধবার পোর্ট রোডে বিগত সময়ের থেকে অনেক বেশি ইলিশ এসেছে।

তিনি আরও বলেন, ইলিশের আমদানির ফলে দর কমে যাচ্ছে। কোরবানির ঈদের আগে মাঝারি সাইজের ইলিশ মনপ্রতি ৩২-৩৪ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে। বুধবার তা ২৮-৩০ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে। আবার এলসি সাইজের ইলিশ ঈদের আগে মনপ্রতি ৪৬-৪৮ হাজার টাকা। বুধবার তা বিক্রি হয়েছে ৪০-৪১ হাজার টাকা দরে।

বরিশাল জেলা মৎস্য আড়তদার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অজিত কুমার দাস বলেন, এই সময়টা ইলিশের মৌসুম। নদী ও সাগরে ইলিশ শিকার অব্যাহত থাকলে আগামী কিছুদিন বরিশালের অবতরণ কেন্দ্রে ইলিশের আমদানি এ রকমই থাকবে। ঈদের সময় হওয়ায় ইলিশের দাম কিছুটা কম। তবে এই দাম থাকবে না। ভোক্তা পর্যায়ে ইলিশের চাহিদা বেড়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দামও ঊর্ধ্বমুখী হবে।