জাতীয় নিরাপত্তা সেলের প্রধান নির্বাহী হলেন আছাদুজ্জামান মিয়া|165407|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২১:৩৮
জাতীয় নিরাপত্তা সেলের প্রধান নির্বাহী হলেন আছাদুজ্জামান মিয়া
নিজস্ব প্রতিবেদক

জাতীয় নিরাপত্তা সেলের প্রধান নির্বাহী হলেন আছাদুজ্জামান মিয়া

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জাতীয় নিরাপত্তা সেলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পদে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ পেয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। মঙ্গলবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এ-সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

এতে বলা হয়েছে, আছাদুজ্জামান মিয়াকে আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর অথবা যোগদানের তারিখ থেকে পরবর্তী তিন বছর মেয়াদে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অধীন ‘জাতীয় নিরাপত্তা সংক্রান্ত সেলের’ প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পদে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেওয়া হলো। প্রজ্ঞাপনে আদেশটি অবিলম্বে কার্যকরের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

জানা যায়, গত ১৩ আগস্ট ডিএমপি কমিশনারের চাকরির মেয়াদ শেষ হয়ে যায়। পরে সরকার এক মাসের জন্য একই পদে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেয়। আছাদুজ্জামান মিয়া ২০১৫ সালের ৭ জানুয়ারি থেকে ডিএমপির ২৭তম কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি ১৯৮৫ সালে বাংলাদেশ পুলিশে যোগ দেন এবং বিভিন্ন ইউনিটে কৃতিত্বের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন।

দীর্ঘ পেশাগত জীবনে তিনি সুনামগঞ্জ, পাবনা ও টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার এবং রেলওয়ে পুলিশের চট্টগ্রাম ও সৈয়দপুরের পুলিশ সুপার ছিলেন। বগুড়ায় প্রথম এপিবিএনের কমান্ডিং অফিসার, অতিরিক্ত ডিআইজি ও নোয়াখালী পুলিশ ট্রেনিংকেন্দ্রের কমান্ড্যান্টের দায়িত্বও পালন করেছেন।

এ ছাড়া হাইওয়ে, ঢাকা, চট্টগ্রাম ও খুলনা রেঞ্জে দায়িত্ব পালন করেন আছাদুজ্জামান মিয়া। দেশ-বিদেশে উচ্চতর প্রশিক্ষণ নিয়েছেন তিনি। জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনেও তিনি বাংলাদেশ পুলিশের নেতৃত্ব দিয়েছেন।

পুলিশ সদর দপ্তরের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা দেশ রূপান্তরকে বলেন, নতুন এই সেল মূলত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বিদ্যমান নিরাপত্তাসংক্রান্ত জাতীয় কমিটির সাচিবিক দায়িত্ব পালন করবে।

নিরাপত্তাসংক্রান্ত জাতীয় কমিটির কাজের মধ্যে রয়েছে– দেশের নিরাপত্তা এবং প্রতিরক্ষাসংক্রান্ত যাবতীয় সমস্যা ও কার্যক্রমের পুনর্নিরীক্ষণ (রিভিউ), দেশের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তাজনিত পরিস্থিতির মূল্যায়ন ও পুনর্নিরীক্ষণ, দেশের নিরাপত্তাসংক্রান্ত বিষয়ের ওপর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা বা সুপারিশ করবে এবং প্রয়োজনবোধে মন্ত্রিসভার জন্যও তারা সুপারিশ করবে। ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, চলতি বছরের মার্চে একটি কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটিতে মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, তিন বাহিনীর প্রধান, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সচিব, আইজিপি, গোয়েন্দা সংস্থার প্রধানসহ আরও একাধিক ব্যক্তি সদস্য হিসেবে রয়েছেন। কমিটির সাচিবিক সহায়তার দায়িত্বে রয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

এখন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অধীনে নতুন ‘সেল’ গঠন করা হয়েছে। তবে এর পূর্ণাঙ্গ কার্যক্রম কবে শুরু হবে তা এখনো ঠিক হয়নি। অন্যান্য বাহিনী থেকেও অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের নিয়োগ দেওয়ার কথা রয়েছে এই সেলে। এক প্রশ্নের জবাবে ওই কর্মকর্তা বলেন, এ সেলটি বছর পাঁচেক আগে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু নানা সমস্যার কারণে তা সম্ভব হয়নি। গত পুলিশ সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী আমাদের বলেছিলেন, দেশের স্বার্থে জাতীয় নিরাপত্তা সেল শিগগিরই গঠন করা হবে।