logo
আপডেট : ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০১:৪৮
ডেঙ্গুতে আরও তিনজনের মৃত্যু
নিজস্ব প্রতিবেদক

ডেঙ্গুতে আরও তিনজনের মৃত্যু

ডেঙ্গুর প্রকোপ কিছুটা কমলেও মৃত্যু থামেনি। শনিবার সারা দেশে আরও তিনজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। গত শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছে ৫২৭ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, নতুন আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে ঢাকা শহরের ৪১টি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ১৫৬ জন। আর ঢাকার বাইরের হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ৩৭১ জন। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা ও ঢাকার বাইরে  রোগী ভর্তি হয়েছে ৬৭২ জন। সে হিসাবে  গত ২৪ ঘণ্টায় রোগীর সংখ্যা কমেছে ১৪৫।

অধিদপ্তর আরও জানায়, চলতি বছর ডেঙ্গু সন্দেহে তারা ২০৩ জনের মৃত্যুর খবর পেয়েছে। এদের মধ্যে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা বিভাগ (আইইডিসিআর) ১০১টি মৃতদেহ পর্যালোচনা করে ৬০ জনের ডেঙ্গুতে মৃত্যু হয়েছে বলে নিশ্চিত হয়েছে।

আরও তিনজনের মৃত্যু : আমাদের জেলা প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্য অনুযায়ী ডেঙ্গুতে সারা দেশে আরও তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন মাদারীপুরের মো. সেলিম মাদবর, সিরাজগঞ্জের নিলুফা ইয়াসমিন ও কুষ্টিয়ার রওশন আরা খাতুন।

ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ঢাকার আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার মো. সেলিম মাদবর (৩৫) মারা গেছেন। তিনি উপজেলার উমেদপুর ইউনিয়নের রামরায়েরকান্দি গ্রামের লালমিয়া মাদবরের ছেলে। স্বজনরা জানান, সেলিম ১০ সেপ্টেম্বর রাতে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হলে প্রথমে তাকে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। পরের দিন উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে আনোয়ার খান মেডিকেলে নিয়ে আসা হয়। সেখানকার আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত শুক্রবার রাতে তার মৃত্যু হয়।

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার রহমতগঞ্জ এলাকার নিলুফা ইয়াসমিন (৫৫) নামের এক নারী ডেঙ্গুরোগে আক্রান্ত হয়ে শনিবার ভোররাতে মারা গেছেন। তিনি রহমতগঞ্জ মহল্লার  নূরুল ইসলামের স্ত্রী। গত বুধবার তিনি সিরাজগঞ্জ শহরের বেসরকারি নর্থ বেঙ্গল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। এরপর অবস্থার অবনতি হলে শুক্রবার রাতে তাকে ঢাকা সিএমএইচ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। নিহতের স্বামী নূরুল ইসলাম জানান, ঢাকা নেওয়ার পথে শনিবার ভোররাতের দিকে তার স্ত্রী মারা যান। এ নিয়ে সিরাজগঞ্জে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে দুজনের মৃত্যু হলো। এর আগে জেলার কামারখন্দ উপজেলায় এক কলেজছাত্রের মৃত্যু হয়।

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের ঠাকুর দৌলতপুর গ্রামের রওশন আরা খাতুন (৫৫) ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে শনিবার মারা গেছেন। স্বজনরা জানান, রওশন কয়েক দিন আগে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হলে তাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে গত বৃহস্পতিবার তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই তার মৃত্যু হয়।