নয়াদিল্লি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী|171713|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৩ অক্টোবর, ২০১৯ ১৩:২৩
নয়াদিল্লি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী
অনলাইন ডেস্ক

নয়াদিল্লি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি: বাসস

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রতিবেশী দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে চার দিনের সফরে গেলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে ভারতীয় বিমানবাহিনীর পালাম ঘাঁটিতে অবতরণ করে।

প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান ভারতের কেন্দ্রীয় মহিলা ও শিশুকল্যাণ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী, ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী ও বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দাস। ওই সময় প্রধানমন্ত্রীকে লাল গালিচা সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

এর আগে সকাল ৮টা ১৫ মিনিটে  হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ঢাকা ত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী।

তৃতীয় মেয়াদে সরকারপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর নয়াদিল্লিতে এটাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রথম সফর।

ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম (ডব্লিউইএফ) আয়োজিত ইন্ডিয়ান ইকোনমিক সামিটে অংশ নেওয়ার পাশাপাশি এই সফরে মোদির সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক হবে শেখ হাসিনার।

সেখানে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে অন্যান্য বিষয়ের সঙ্গে তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তি, আসামের নাগরিক তালিকা এবং সীমান্ত হত্যার প্রসঙ্গ তোলা হবে বলে আগেই জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

আরও জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর সফরে দুই দেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত হবে ডজনখানেক চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে দেওয়া হবে ‘টেগর পিস অ্যাওয়ার্ড’।

বৃহস্পতিবারই দুপুরেই নয়া দিল্লির হোটেল তাজ প্যালেসের দরবার হলে শুরু হওয়া ইন্ডিয়া ইকোনমিক সামিটে যোগ দেবেন শেখ হাসিনা। বাংলাদেশের ওপর কান্ট্রি স্ট্র্যাটেজি ডায়ালগে অংশ নেবেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী একই দিন বাংলাদেশ ভবনে প্রধানমন্ত্রীর সম্মানে হাই কমিশন আয়োজিত নৈশভোজে অংশ নেবেন।

শুক্রবার ভারতের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলোচনা এবং বাংলাদেশ-ভারত ব্যবসায়িক ফোরামের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন শেখ হাসিনা।

শনিবার সকালে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শংকর তাজ হোটেলে এসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।

এরপর দিল্লির হায়দরাবাদ হাউসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দ্বিপক্ষীয় বৈঠক হবে। সেখানে তাদের উপস্থিতিতেই দুই দেশের মধ্যে বেশ কয়েকটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হওয়ার কথা রয়েছে।

হায়দরাবাদ হাউসে প্রধানমন্ত্রীর সম্মানে আয়োজিত ভোজসভায় অংশ নেবেন শেখ হাসিনা।

পরে বিকেলে ভারতের রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।

রবিবার সকালে ভারতের খ্যাতিমান চলচ্চিত্র পরিচালক শ্যাম বেনেগাল হোটেলে এসে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্মের ওপর চলচ্চিত্র নির্মাণের দায়িত্ব পেয়েছেন এই ভারতীয় নির্মাতা।

দুপুরে ভারতের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসের সভাপতি সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন শেখ হাসিনা। বিকেলে রওনা হয়ে রাতে ঢাকায় পৌঁছাবেন তিনি।