ডেঙ্গুতে আরও তিনজনের মৃত্যু, বেড়েছে নতুন রোগী|172423|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৬ অক্টোবর, ২০১৯ ২২:১২
ডেঙ্গুতে আরও তিনজনের মৃত্যু, বেড়েছে নতুন রোগী
নিজস্ব প্রতিবেদক

ডেঙ্গুতে আরও তিনজনের মৃত্যু, বেড়েছে নতুন রোগী

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে সারা দেশে আরও তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। সেই সঙ্গে আবার বেড়েছে নতুন ডেঙ্গু রোগী।

গত শনিবার নতুন ভর্তি রোগীর সংখ্যা ছিল ২৬৯ জন, যা প্রায় গত তিন মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। কিন্তু গতকাল রোববার এই সংখ্যা ৪৫ জন বেড়ে ৩১৪ জনে পৌঁছেছে।

এছাড়া স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কাছে চলতি বছর ডেঙ্গু সন্দেহে ২৩৬ জনের মৃত্যুর তথ্য এসেছে। এদের মধ্যে অধিদপ্তরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) ১৩৬ জনের মৃত্যুর তথ্য পর্যালোচনা করে ৮১ জন ডেঙ্গুতে মৃত্যু হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে।

অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, হাসপাতালে ভর্তি হওয়া নতুন রোগীদের মধ্যে রাজধানীতে ভর্তি হয়েছেন ৭৩ জন এবং রাজধানীর বাইরে ২৪১ জন। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন ২৬৯ জন আর তার আগের ২৪ ঘণ্টায় এই সংখ্যা ছিল ৩২৬ জন। এ নিয়ে চলতি বছর ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হেয় হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ৮৯ হাজার ৯৩০ জন। এদের মধ্যে চিকিৎসা শেষে বাড়ি ফিরেছেন ৮৮ হাজার ৩৫৬ জন। আর বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন ১ হাজার ৩৩৮ জন। এদের মধ্যে রাজধানীতে ৪৭০ জন এবং রাজধানীর বাইরে ৮৬৮ জন।

রাজধানীতে নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ঢাকা মেডিকেলে ১৬ মিটফোর্ড হাসপাতালে ১২ জন, শিশু হাসপাতালে ২ জন, সোহরাওয়ার্দী ৮ জন, বিএসএমএমইউতে ৫ জন, পুলিশ হাসপাতালে ১ জন, মুগদা হাসপাতালে ৫ জন, সিএমএইচে ২ জন, কুর্মিটোলা হাসপাতালে ৪ জন এবং বেসরকারি ক্লিনিকে ১৭ জন ভর্তি হয়েছেন। রাজধানীর বাইরে ঢাকা বিভাগে ৩৩ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৪১ জন, খুলনা বিভাগে ১০৮ জন, রংপুর বিভাগে ১ জন, রাজশাহী বিভাগে ১৪ জন, বরিশাল বিভাগে ৩৮ জন, সিলেট বিভাগে ২ জন ও ময়মনসিংহ বিভাগে ৪ জন ভর্তি হয়েছেন।

ডেঙ্গুতে ৩ জনের মৃত্যু: আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্য অনুযায়ী ডেঙ্গুতে সারা দেশে আরও ৩ জনের মৃত্যুর তথ্য পাওয়া গেছে। এরা সবাই রাজধানীর বাইরে বসবাস করতেন।

শনিবার গভীর রাতে কুষ্টিয়ায় শামীম বিশ্বাস (২৬) নামে এক ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু হয়েছে। সে দৌলতপুর উপজেলার রিফাইতপুর ইউনিয়নের কাগহাটি গ্রামের রফিকুল বিশ্বাসের ছেলে। রাত দেড়টার দিকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

শনিবার রাতে চট্টগ্রামের ন্যাশনাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সুমি বৈদ্য (১৯) নামে এক তরুণীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি খুলশী থানাধীন ফয়েস লেক বৈশাখী ভবনের সুনীল বৈদ্যের মেয়ে এবং নগরীর এমইএস বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে সম্প্রতি এইচএসসি পাশ করেছেন। সুমির ছোট ভাই অরূপ বৈদ্য (১৬) ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

শনিবার রাতে মাগুরায় মাছুমা বেগম (৪০) নামে এক ডেঙ্গু রোগী ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে। তিনি মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার সাচিলাপুর গ্রামের বাসিন্দা। মাসুমা গত ২৭ সেপ্টেম্বর ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে প্রথমে দারিয়াপুর উপজেলা হেলথ কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছিলেন। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা নিয়ে আসা হয়েছিল।