আলহাজ টেক্সটাইলের কারখানা বন্ধ|172861|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৯ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০
উৎপাদিত সুতার ক্রেতা নেই
আলহাজ টেক্সটাইলের কারখানা বন্ধ
নিজস্ব প্রতিবেদক

আলহাজ টেক্সটাইলের কারখানা বন্ধ

উৎপাদিত সুতা বিক্রি করতে না পেরে কয়েক দফা সাময়িক বন্ধের পর এবার অনির্দিষ্টকালের জন্য কারখানা বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে বস্ত্র খাতের কোম্পানি আলহাজ টেক্সটাইল মিলস। ৮ অক্টোবর থেকে কোম্পানির কারখানা বন্ধ থাকছে।

কোম্পানি সূত্রে জানা গেছে, একই সঙ্গে সব শ্রমিক ছাঁটাইয়েরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিক্রয় পরিস্থিতির উন্নতি হলে মিল চালু হবে। এছাড়া শ্রমিকদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে চাকরি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে কোম্পানিটি।

কোম্পানিটি আরও জানায়, এর আগে মিলের উৎপাদিত সুতা অবিক্রীত থাকা ও মজুদ পণ্য গোডাউনে রাখার জায়গা সংকুলান না হওয়ায় গত ২৪ জুন থেকে কয়েক দফায় কারখানা বন্ধ ঘোষণা

করা হয়। মোট ১১৫ দিন মিল লে-অফ করার পরও বিক্রয় পরিস্থিতি উন্নতি হয়নি। এ অবস্থায়  কোম্পানিটি অনির্দিষ্টকালের জন্য কারখানা বন্ধ ঘোষণা করেছে।

এ বিষয়ে আলহাজ টেক্সটাইলের কোম্পানি সচিব শওকত আলী দেশ রূপান্তরকে বলেন, ১৯৬৩ সাল থেকে এ কোম্পানিটি চলছে। কিন্তু বর্তমানে বন্ডের মাধ্যমে আমদানি করা সুতার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে আমরা প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে পারছি না। আমাদের সুতার গ্রাহক স্থানীয় পাওয়ার ও হ্যান্ডলুম কারখানাগুলো। তারা অন্য জায়গা থেকে কম দরে সুতা পাচ্ছে। এ কারণে আমরা তাদের কাছে সুতা বিক্রি করতে পারছি না। একই সময় উৎপাদিত সুতা রাখার স্থান সংকুলান হচ্ছে না। এমন পরিস্থিতিতে বাধ্য হয়েই অনির্দিষ্টকালের জন্য কারখানা বন্ধের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটির প্রধান কার্যালয় ও ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত কাজে নিয়োজিত কর্মী ছাড়া অন্যসব কর্মচারীকে শ্রম আইন অনুসারে ছাঁটাই করা হয়েছে। আগামীতে যদি কারখানা আবার চালু হয়, তাহলে ছাঁটাইকৃত শ্রমিকদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

১৯৮৩ সালে তালিকাভুক্ত এ কোম্পানির উদ্যোক্তারা গোপনে বড় অঙ্কের শেয়ার বিক্রি করে দিয়েছেন। পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থায় তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।