বুয়েটে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহে পুলিশকে বাধা দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ক্ষোভ|172984|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৯ অক্টোবর, ২০১৯ ১৭:০৭
বুয়েটে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহে পুলিশকে বাধা দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ক্ষোভ
নিজস্ব প্রতিবেদক

বুয়েটে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহে পুলিশকে বাধা দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ক্ষোভ

কে কোন দল করে তা দেখা হবে না, অপরাধী অপরাধীই উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বুয়েটের ঘটনা শোনার সঙ্গে সঙ্গেই পুলিশকে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বলে দিয়েছি। পুলিশ বুয়েটের শেরেবাংলা হল থেকে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করতে গেলে তাদের বাধা দেয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

অপরাধীরা কোন দলের তা বিবেচনা করা হবে না উল্লেখ করে বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার হত্যা প্রসঙ্গে বলেন, হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি দেয়া হবে। বুয়েটের ঘটনা শোনার সাথে সাথেই পুলিশকে ফোন দিয়ে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করতে বলেছি। কিন্তু পুলিশ ফুটেজ সংগ্রহ করতে গেলে তাদের ঘেরাও করে রাখা হলো। তারা বলছে পুলিশ ফুটেজ নষ্ট করবে। এখানে আমার প্রশ্ন- পুলিশকে কেন আলামত সংগ্রহে বাধা দেয়া হলো?

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখানে কে ছাত্রলীগ, কে ছাত্রদল তা বিবেচনা করিনি। আবরার হত্যায় যেই জড়িত হোক তাকেই শাস্তি পেতে হবে। এ সময় শেখ হাসিনা দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, কী নির্মমভাবে বাচ্চা একটা ছেলেকে পিটিয়ে হত্যা করা হলো। ২০০১ সালে আমাদের অনেক নেতা-কর্মীকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছিল।

শেখ হাসিনা বলেন, ঘটনার পর আমি ছাত্রলীগকে ডেকেছি। তাদেরকে বলেছি অভিযুক্তদের বহিষ্কার করতে। আমি জানি স্বজন হারানোর বেদনা কী? আমি আমার স্বজন হারিয়েছি। কত বছর পর বিচার পেয়েছি তা দেশের জনগণের ভুলে যাওয়া উচিত না।

বিশ্ব অর্থনীতি ফোরামের ভারত অর্থনৈতিক সম্মেলনে যোগদান করতে গত ৩ থেকে ৬ অক্টোবর চার দিন দিল্লি সফর করেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন। প্রধানমন্ত্রী এই দুই সফরের উল্লেখযোগ্য বিষয়গুলো সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরছেন।

এর আগে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) ৭৪তম অধিবেশনে যোগদানের উদ্দেশ্যে তিনি গত ২২ থেকে ২৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র সফর করেন।