শুক নদীতে মাছ ধরা উৎসব|175120|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৯ অক্টোবর, ২০১৯ ২১:২৭
শুক নদীতে মাছ ধরা উৎসব
ফিরোজ আমিন সরকার, ঠাকুরগাঁও

শুক নদীতে মাছ ধরা উৎসব

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার শুক নদীর বুড়ির বাঁধে মাছ ধরার উৎসবে হাজারো মানুষ। ছবিটি শনিবার সকালে তোলা। ছবি: দেশ রূপান্তর

কেউ কোমর বেঁধে হাতে পলো, কারও হাতে জাল, কেউবা নেমেছেন খালি হাতে– সবাই নেমেছেন মাছ ধরতে। নারী-পুরুষ-শিশু-বৃদ্ধসহ হাজারো মানুষের সমাগম। পুরো এলাকা যেন মেতে উঠেছে মাছ ধরার বাঁধ ভাঙা উৎসবে।

এমন দৃশ্য ঠাকুরগাঁও শুক নদীর তীরে বুড়ির বাঁধ এলাকায়।  শনিবার সকালে বাঁধের গেট খুল দেওয়ায় এ উৎসবে যোগ দিয়েছেন আশপাশের গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ। ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আকচা ও চিলারং ইউনিয়নের অসংখ্য মানুষ মাছ ধরতে ব্যস্ত সকাল থেকে।

এই উৎসবে বাদ যাননি শিশু ও বৃদ্ধরাও। প্রায় সবার হাতে একটি করে পলো, চাবিজাল, খেয়াজাল, টানাজাল রয়েছে। যাদের মাছ ধরার সরঞ্জাম নেই তারাও বসে নেই। হাত দিয়েই কাদার মধ্যে মাছ খুঁজতে ব্যস্ত দেখা যায় তাদের। আর নদীর পাড়ে হাজারো মানুষ ভিড় জমিয়েছেন মাছ ধরা দেখতে। অনেককে মাছ না ধরলেও বন্ধুবান্ধব ও স্বজনদের উৎসাহ দিতে দেখা যায়।

সদর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন থেকে মাছ ধরতে এসেছেন মমিনুল ইসলাম। তিনি বলেন, মাছ ধরা উৎসবের কথা শুনে গতকাল রাতে এখানে এসেছি। ভোরে নেমে যাই মাছ ধরতে। পুঁটি, রুইসহ বিভিন্ন প্রকারের মাছ জালে আটকা পড়েছে বলে জানান তিনি।

বিপ্লব কুমার রায় নামের এক মাছ শিকারি বলেন, ‘আমরা প্রতিবছর এই সময় বুড়ির বাঁধে মাছ ধরতে আসি। এখানে দেশি প্রজাতির মাছ পাওয়া যায়।’

পাশের পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলা থেকে মাছ কিনতে এসেছেন বাবুল রায়। তিনি বলেন,  ‘প্রতি বছরই এখান থেকে মাছ কিনি। এবারও এসেছি, এখানে দেশি মাছ একটু কম দামে পাওয়া যায়।’