৪১তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি নভেম্বরে, নিয়োগ ২১৩৫|177016|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৮ অক্টোবর, ২০১৯ ১৯:৩০
৪১তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি নভেম্বরে, নিয়োগ ২১৩৫
নিজস্ব প্রতিবেদক

৪১তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি নভেম্বরে, নিয়োগ ২১৩৫

নভেম্বরে ৪১তম বিসিএস পরীক্ষার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশনে (পিএসসি)। সূত্র জানায়, এ বিসিএস হবে সাধারণ (জেনারেল)। নিয়োগ দেওয়া হবে ২ হাজার ১৩৫ জনকে। 

আরো জানা গেছে, ৪০তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা ডিসেম্বরে নেয়ার বিষয়ে প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে পিএসসি। তবে এখনো সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত নয়। খুব শিগগিরই এর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত বিজ্ঞপ্তি আকারে প্রকাশ করবে দেশের সর্বোচ্চ নিয়োগ পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা পিএসসি।

পিএসসি থেকে জানা গেছে, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে পিএসসি ৪১তম বিসিএস পরীক্ষার জন্য নির্দেশনা পেয়েছে। চাহিদাপত্রও হাতে পেয়েছে।  মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুসারে এ বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করার চূড়ান্ত অবস্থানে আছে পিএসসি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পিএসসির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাদিক দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘আমরা ৪১তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছি। খুব শিগগিরই এটি পিএসসির ওয়েবসাইটসহ বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে প্রকাশ করা হবে।’

তবে কবে প্রকাশ করা হবে, সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট করে কিছু বলেননি তিনি। 

এ ছাড়া ৪০তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা ডিসেম্বরে নেয়ার বিষয়ে প্রাথমিক আলোচনা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

পিএসসির কয়েকজন কর্মকর্তা দেশ রূপান্তরকে জানান, বিজ্ঞপ্তি নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহেই প্রকাশ করা হতে পারে।

তারা জানান, এ বিসিএসে সবচেয়ে বেশি নেয়া হবে শিক্ষা ক্যাডারে। এ ক্যাডারে ৯১৫ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। এর মধ্যে বিসিএস শিক্ষায় প্রভাষক ৯০৫ জন, কারিগরি শিক্ষা বিভাগে ১০ প্রভাষককে নেয়া হবে। শিক্ষার পর বেশি নিয়োগ হবে প্রশাসন ক্যাডারে। প্রশাসনে ৩২৩ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। এর মধ্যে পুলিশে ১০০, বিসিএস স্বাস্থ্যতে সহকারী সার্জন ১১০ ও সহকারী ডেন্টাল সার্জন পদে ৩০ জনকে নেয়া হবে।

এ ছাড়া পররাষ্ট্রে ২৫, আনসারে ২৩, অর্থ মন্ত্রণালয়ে সহকারী মহা হিসাবরক্ষক (নিরীক্ষা ও হিসাব) ২৫, সহকারী কর কমিশনার (কর) ৬০, সহকারী কমিশনার (শুল্ক ও আবগারি) ২৩ ও সহকারী নিবন্ধক পদে আটজনকে নেয়া হবে।

আরো জানা গেছে, এ বিসিএসে পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগে পরিসংখ্যান কর্মকর্তা পদে ১২, রেলপথ মন্ত্রণালয়ে সহকারী যন্ত্র প্রকৌশলী পদে চার, সহকারী ট্রাফিক সুপারিনটেনডেন্ট একজন, সহকারী সরঞ্জাম নিয়ন্ত্রক একজন, সহকারী প্রকৌশলী (সিভিল) ২০ জন, সহকারী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) পদে তিনজনকে নেওয়া হবে।

তথ্য মন্ত্রণালয়ে সহকারী পরিচালক বা তথ্য কর্মকর্তা বা গবেষণা কর্মকর্তা পদে ২২, সহকারী পরিচালক (অনুষ্ঠান) ১১, সহকারী বার্তা নিয়ন্ত্রক পাঁচ, সহকারী বেতার প্রকৌশলী নয়, স্থানীয় সরকার বিভাগে বিসিএস জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলে সহকারী প্রকৌশলী ৩৬ এবং সহকারী বনসংরক্ষক পদে ২০ জনকে নেয়া হবে।

সহকারী পোস্ট মাস্টার জেনারেল পদে দুজন, বিসিএস মৎস্যতে ১৫ জন, পশুসম্পদে ৭৬ জন, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা ১৮৩ জন ও বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ছয়জন, বিসিএস বাণিজ্যে সহকারী নিয়ন্ত্রক পদে চারজনকে নিয়োগ দেওয়া হবে।

এ ছাড়া পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা চারজন, বিসিএস খাদ্যে সহকারী খাদ্যনিয়ন্ত্রক ছয়জন ও সহকারী রক্ষণ প্রকৌশলী দুজন, বিসিএস গণপূর্তে সহকারী প্রকৌশলী (সিভিল) ৩৬ জন ও সহকারী প্রকৌশলী (ই/এম) ১৫ জনসহ মোট দুই হাজার ১৩৫ কর্মকর্তাকে এ বিসিএসে নিয়োগ দেওয়া হবে বলে পিএসসি সূত্রে জানা গেছে।

সর্বশেষ ৪০তম বিসিএসের জন্য গত বছরের ১১ সেপ্টেম্বর বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি।  ৪০তম বিসিএসের আবেদন গ্রহণ শুরু হয় ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে।  এতে আবেদন করেন চার লাখ ১২ হাজার ৫৩২ প্রার্থী। এ বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় তিন মে। ২৫ জুলাই প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়।

৪০তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় পাস করছেন ২০ হাজার ২৭৭ প্রার্থী। এ বিসিএসে মোট এক হাজার ৯০৩ ক্যাডার নিয়োগ দেওয়ার কথা রয়েছে।  পরীক্ষাটির লিখিত পরীক্ষা আগামী ডিসেম্বরে শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।