সিরিয়া থেকে মাসে ৩০ মিলিয়ন ডলারের তেল পাচার করছে যুক্তরাষ্ট্র|178018|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২ নভেম্বর, ২০১৯ ১১:১৭
সিরিয়া থেকে মাসে ৩০ মিলিয়ন ডলারের তেল পাচার করছে যুক্তরাষ্ট্র
অনলাইন ডেস্ক

সিরিয়া থেকে মাসে ৩০ মিলিয়ন ডলারের তেল পাচার করছে যুক্তরাষ্ট্র

ছবি: এএফপি

যুক্তরাষ্ট্র প্রতি মাসে সিরিয়া থেকে ৩০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের তেল পাচার করে আসছে বলে দাবি করেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা।

তিনি বলেন, দামেস্ক থেকে দখলে নেওয়া তেলক্ষেত্র থেকে অপরিশোধিত তেল পাচার করে যুক্তরাষ্ট্র নিজেই তার সিরিয়াবিরোধী নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করছে।

রুশ সংবাদমাধ্যম আরটি জানায়, উত্তর সিরিয়ার তেলক্ষেত্র থেকে এসব তেল আসে। সিরিয়া-তুর্কি সীমান্ত থেকে মার্কিন সেনাদের সরিয়ে ওই এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রকে ইঙ্গিত করে মারিয়া জাখারোভা বলেন, ‘আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে নিজেদের গণতান্ত্রিক ও আইনের শাসনের বিরক্তির বুলিয়ে আওড়িয়ে থাকা একটি জাতি আইএসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ভান করে তেল উত্তোলন করে যাচ্ছে।’

আইএস জঙ্গিদের হটিয়ে কুর্দি মিলিশিয়ারা ইউফ্রেতিস নদীর পূর্ব পাশের দেইর ইজ-জোর গভর্নরেটের তেলক্ষেত্রগুলোর দখলে নেয়। আসাদ বাহিনীর প্রবেশ ঠেকাতে যুক্তরাষ্ট্র সেখানে সামরিক উপস্থিতি বজায় রেখেছে।

মারিয়া জাখারোভা বলেন, যুক্তরাষ্ট্র সিরিয়ার সঙ্গে তেল বাণিজ্যে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। আর নির্মম বাস্তবতা হলো- তারাই এখন দেশটির তেল পাচার করছে।

প্রসঙ্গত, উত্তর সিরিয়ায় তুরস্কের সামরিক অভিযানের মুখে কুর্দিদের ‘ত্যাগ করে’ সেনা সরিয়ে নিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। তবে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে সেখানকার তেলক্ষেত্র ‘পাহারায়’ ফের সেনা মোতায়েন করে দেশটি।

আগে থেকেই দেইর ইজ-জোর প্রদেশে প্রায় ২০০ মার্কিন সেনা মোতায়েন ছিল। তবে তুরস্কের সামরিক অভিযানের পথ করে দিতে গত মাসে উত্তর সিরিয়া থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

এই যুদ্ধে নিজদের সম্পৃক্ত হওয়া নিয়ে আগেকার নীতি পরিবর্তন করে গত সপ্তাহে তিনি বলেন, তেলক্ষেত্রের ‘নিরাপত্তা দিতে’ সেখানে ‘স্বল্পসংখ্যক সেনা’ মোতায়েন থাকবে।