খোকার মরদেহ দেশে আনতে ‘সর্বাত্মক’ সহযোগিতা করা হবে: তথ্যমন্ত্রী|178495|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৪ নভেম্বর, ২০১৯ ১৮:৪২
খোকার মরদেহ দেশে আনতে ‘সর্বাত্মক’ সহযোগিতা করা হবে: তথ্যমন্ত্রী
নিজস্ব প্রতিবেদক

খোকার মরদেহ দেশে আনতে ‘সর্বাত্মক’ সহযোগিতা করা হবে: তথ্যমন্ত্রী

সাবেক মন্ত্রী ও ঢাকার সাবেক মেয়র বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকার মরদেহ দেশে আনতে সরকার ‘সর্বাত্মক’ সহযোগিতা করবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। খোকার মৃত্যুর খবরে তথ্যমন্ত্রী শোক প্রকাশ করে বলেন, আমি তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি।

সোমবার মন্ত্রিসভা বৈঠক শেষে তথ্যমন্ত্রী সচিবালয়ে বিএনপির এই ভাইস চেয়ারম্যানের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাংলাদেশ সময় সোমবার দুপুর ১টায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকা মৃত্যুবরণ করেন। ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে ২০১৪ সালের ২৪ মে চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে যান মুক্তিযুদ্ধের এই গেরিলা যোদ্ধা।

তথ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ঢাকার সাবেক মেয়র ও সংসদ সদস্য মৃত্যুবরণ করেছেন, আমি তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করছি তার বিদেহী আত্মার শান্তি ও মাগফিরাত কামনা করছি।

খোকার লাশ দেশে আনা নিয়ে কোনো সমস্যা রয়েছে কি না- জানতে চাইলে হাছান মাহমুদ বলেন, তিনি তো ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন, এ জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে গতকালই বলা হয়েছিল। তাকে আনার জন্য সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হচ্ছে ও হবে, সে ঘোষণা তো আগেই দেওয়া হয়েছিল।

সাদেক হোসেন খোকার জন্ম ১২ মে ১৯৫২ সালে। ১৯৭১ সালে তিনি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মনোবিজ্ঞান বিভাগে শেষ বর্ষের ছাত্র। মহান মুক্তিযুদ্ধে ক্র্যাক প্লাটুনের গেরিলা যোদ্ধা হিসেবে তার খ্যাতি রয়েছে।

তিনি ১৯৯১ সালের জাতীয় নির্বাচনে ঢাকা-৭ আসনে (সূত্রাপুর-কোতোয়ালি) শেখ হাসিনাকে পরাজিত করে প্রথমবারের মতো এমপি নির্বাচিত হয়ে আলোচনায় আসেন। এ সময় তিনি যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান।

এরপর ২০০১ সালের নির্বাচনেও সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে মৎস্য ও পশুসম্পদমন্ত্রী হন। ২০০২ সালের ২৫ এপ্রিল অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে তিনি মেয়র নির্বাচিত হন। ২০১১ সালের ২৯ নভেম্বর পর্যন্ত তিনি ঢাকার মেয়র ছিলেন।