বিএনপিতে আসার অবস্থা হয়েছে আওয়ামী লীগ নেতাদেরই|180392|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৪ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০
সাংবাদিকদের ফখরুল
বিএনপিতে আসার অবস্থা হয়েছে আওয়ামী লীগ নেতাদেরই
নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপিতে আসার অবস্থা হয়েছে আওয়ামী লীগ নেতাদেরই

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বিএনপি থেকে নয়, এখন আওয়ামী লীগ থেকে দলটির নেতাদের বিএনপিতে আসার অবস্থা তৈরি হয়েছে। গতকাল বুধবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির উদ্যোগে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

অনেকে বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে আসার জন্য যোগাযোগ করছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদের এমন বক্তব্যের

প্রতিক্রিয়ায় মির্জা ফখরুল সাংবাদিকদের বলেন, তথ্যমন্ত্রী মহোদয় প্রায়শই এ ধরনের কথা-বার্তা বলেন। সেগুলোয় তার কিছুটা সৃজনশীলতার আভাস পাওয়া যায়, আর কি! বেশ নতুন নতুন গল্প তৈরি করেন তিনি। তথ্যমন্ত্রী মহোদয়ের যে সরকার আছে তারা গোয়েবলসীয় প্রচারের মধ্য দিয়ে সরকারকে টিকিয়ে রাখার চেষ্টা করছে।

‘বিএনপিতে বিভক্তি সৃষ্টি হওয়ায় নেতারা চলে যাচ্ছেন; কারণ বাইরে থেকে তারেক রহমান দল চালাতে পারছেন না।’ তথ্যমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের বিষয়ে দলের মহাসচিব বলেন, এসব কথা বলে ওনারা অভ্যস্ত। কারণ তারা নিজেদের দল সামলাতে পারছেন না। প্রতিদিন যুবলীগের সম্মেলনে পরস্পর মারামারি করছেন। তাদের পতন ঢেকে রাখার জন্য অহেতুক মিথ্যা কথা বলছেন। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ প্রমাণ করেছে তারা রাজনৈতিক দল হিসেবে দেউলিয়া হয়ে গেছে। রাষ্ট্র পরিচালনা করতে গিয়ে তারা দেশের মানুষের অধিকার হরণ করেছে। গণতন্ত্রের সব প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করে দিয়েছে। বাংলাদেশকে একটি ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য তারা কাজ করছে। তিনি বলেন, তাদের সহযোগী একটি রাজনৈতিক দলের মহাসচিব কয়েক দিন আগে স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনের প্রতীক নূর হোসেনকে নিয়ে রাজনৈতিক শিষ্টাচারবহির্ভূত কথা বলেছিলেন। বিএনপি এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছে। বিএনপি মনে করে প্রকাশ্যে, সংসদে তার ক্ষমা চাওয়া উচিত।

দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের পদত্যাগের বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপির জ্যেষ্ঠ নেতারা পদত্যাগ করেছেন তা তিনি সাংবাদিকদের কাছে শুনছেন। এ বিষয়ে কিছু জানেন না। তিনি জানান, কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির যে আন্দোলন চলছে তা আগামীতে আরও বেগবান হবে।

এ সময় নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সভাপতি আবুল কালাম, সাধারণ সম্পাদক এ টি এম কামাল, বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক শহীদুল ইসলাম বাবুল, ওলামা দলের আহ্বায়ক মাওলানা শাহ নেছারুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।