নিজেকে বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট ঘোষণা নারী সিনেটরের|180400|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৪ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০
নিজেকে বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট ঘোষণা নারী সিনেটরের
প্রতিদিন ডেস্ক

নিজেকে বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট ঘোষণা নারী সিনেটরের

বলিভিয়ায় ইভো মোরালেসের পদত্যাগের পর বিরোধীদলীয় সিনেটর জিনাইন অ্যানেজ নিজেকে দেশটির অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেছেন। গত মঙ্গলবার দেশটির পার্লামেন্টের কোরামহীন এক অধিবেশনে তিনি এই ঘোষণা দিয়েছেন বলে জানিয়েছে বিবিসি।

সম্প্রতি ত্রুটিপূর্ণ নির্বাচনের কারণে দেশব্যাপী বিক্ষোভের মুখে পদত্যাগ

করেন প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেস ও ভাইস প্রেসিডেন্ট আলভারো গার্সিয়া। মোরালেস পদত্যাগ করায় দেশটির প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পদাধিকার বলে তার ওপরই বর্তায় বলে দাবি করেন ৫২ বছর বয়সী এই নারী সিনেটর।

বিবিসিকে অ্যানেজ জানান, সংবিধান অনুযায়ী পরবর্তী ব্যক্তি হিসেবে কেবল তিনিই প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নিতে পারেন। খুব শিগগিরই দেশটিতে নির্বাচনের ঘোষণা দেবেন তিনি।

বলিভিয়ার সংবিধান মতে, প্রেসিডেন্টের অনুপস্থিতিতে ভাইস প্রেসিডেন্ট সেই দায়িত্ব নিতে পারেন। যদি তিনিও না থাকেন, ক্রমান্বয়ে সেই দায়িত্ব পাবেন দুই কক্ষবিশিষ্ট পার্লামেন্টের প্রধানরা। তবে মোরালেস পদত্যাগ করার পর তারা সবাই পদত্যাগ করেন।

পদত্যাগের পরপরই গত মঙ্গলবার প্রতিবেশী দেশ মেক্সিকোয় রাজনৈতিক আশ্রয় নিয়েছেন মোরালেস। সেখান থেকেই অ্যানেজের এই ঘোষণার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন তিনি। এ ঘটনায় ডানপন্থি সিনেটরদের উসকানিকে দায়ী করেছেন সাবেক ওই প্রেসিডেন্ট। মেক্সিকোতে থেকেই অ্যানেজবিরোধী আন্দোলন চালিয়ে যাবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

একই সঙ্গে মোরালেসের বামপন্থি দলের সিনেটররাও অ্যানেজের এই ঘোষণাকে বয়কট করেছেন। শুধু তাই নয়, ওই ঘোষণাকে বেআইনি উল্লেখ করে পার্লামেন্টের ওই অধিবেশনকে বর্জন করেন তারা। এতে কোরাম সংকটে পড়ে প্রেসিডেন্ট ঘোষণার ওই অধিবেশন।

২০০৬ সালে প্রথমবারের মতো বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন মোরালেস। দেশটির ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠী থেকে নির্বাচিত প্রথম প্রেসিডেন্ট হিসেবে ১৩ বছর বলিভিয়ার ক্ষমতায় ছিলেন তিনি। দেশটির অর্থনৈতিক উন্নয়নে অবদান রেখে প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন কোকোচাষি মোরালেস। তবে সংবিধান উপেক্ষা করে গত অক্টোবরে চতুর্থ দফায় নির্বাচন করতে গেলে দেশে-বিদেশে সমালোচনার মুখে পড়েন মোরালেস।