স্কুলছাত্রীকে আটকে রেখে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ২|180673|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ ১৭:৩২
স্কুলছাত্রীকে আটকে রেখে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ২
বরিশাল প্রতিনিধি

স্কুলছাত্রীকে আটকে রেখে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ২

বরিশালের উজিরপুরে এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। চাচার থেকে নিজের বাড়ি ফেরার পথে দুই যুবক নুরুল ইসলাম বয়াতী এবং তরিকুল ইসলাম মুখ তাকে বেঁধে ধর্ষণ করে।

এ ঘটনায় শুক্রবার উজিরপুর থানায় মামলা করেছে ওই ছাত্রী।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় চাচার বাড়ি থেকে নিজের বাড়ি ফেরার পথে ওই বখাটে যুবকরা ধর্ষণ করে ওই ছাত্রীকে। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার দুজন হলো বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার পয়সারহাট এলাকার আয়নাল বয়াতীর ছেলে নুরুল ইসলাম বয়াতী (২০) ও গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ার কালারবাড়ি এলাকার আলী আকবরের ছেলে তরিকুল ইসলাম (১৯)।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উজিরপুর উপজেলার সাতলা ইউনিয়নের পটিবাড়ি এলাকার বাসিন্দা ওই ছাত্রীকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলে বাড়ির পাশের মাছের ঘেরের কর্মচারী নুরুল ও তরিকুল। এতে রাজি না হওয়ায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় চাচার বাড়ি থেকে নিজ বাড়িতে ফেরার সময় ওই স্কুলছাত্রীর মুখ চেপে ধরে তুলে নিয়ে যায় নুরুল ইসলাম ও তরিকুল ইসলাম। এসময় ওই ছাত্রীর সঙ্গে থাকা ছয় বছরের ছোট চাচাতো বোনকে ভয় দেখিয়ে পাঠিয়ে দেয় তারা। মাছের ঘেরের একটি ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে ওই ছাত্রীকে। পরে রাত ১০টার দিকে তার হাত-পা-মুখ বেঁধে ঘেরের পানিতে গলা পর্যন্ত ডুবিয়ে রাখা হয়।

স্বজনেরা ওই ছাত্রীর চাচাতো বোনের কাছ থেকে বিষয়টি জানতে পেরে ছাত্রীর খোঁজে বের হয়। একপর্যায়ে তাকে ওমর খানের ঘেরের পুকুর থেকে মুখে পলিথিন ও হাত-পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় গ্রামবাসী ওই দুই জনকে আটক করে পিটুনি দিয়ে পুলিশের হাতে সোপর্দ করে।

উজিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিশির কুমার পাল বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে এলাকাবাসী দুই যুবককে পুলিশে সোপর্দ করেছে। তাদের বিরুদ্ধে ধর্ষণের শিকার ছাত্রী মামলা দায়ের করেছে। ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে দুই যুবককে আদালতে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি ধর্ষণের শিকার ছাত্রীর মেডিকেল পরীক্ষার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।