‘লতা মুঙ্গেশকরকে নিয়ে গুজব ছড়ানো বন্ধ করুন’|180957|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০
‘লতা মুঙ্গেশকরকে নিয়ে গুজব ছড়ানো বন্ধ করুন’

‘লতা মুঙ্গেশকরকে নিয়ে  গুজব ছড়ানো বন্ধ করুন’

‘লতা মুঙ্গেশকর আর নেই’, ‘লতা মুঙ্গেশকরের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা’, ‘চলে গেলেন লতা মুঙ্গেশকর’- কিংবদন্তি শিল্পী লতা মঙ্গেশকরকে নিয়ে ফেইসবুক, ইন্সটাগ্রাম আর টুইটারে গত কয়েক দিন এমনি অসংখ্য বার্তা লেখা হচ্ছে। এসব বার্তায় অনেকেই এই সংগীতশিল্পীর প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন, শোক প্রকাশ করছেন। এসব বার্তার মধ্য দিয়ে লতা মুঙ্গেশকরের মৃত্যুর খবর প্রচার করা হচ্ছে। আর তা কেউ কেউ করছেন অতি উৎসাহী হয়ে, আবার কেউ কেউ করছেন কিছু না জেনেই। আর বেশির ভাগ মানুষই করছেন গুজব ছড়ানোর জন্য। এবার লতা মুঙ্গেশকরের পরিবারের পক্ষ থেকে এসব গুজব ছড়ানো বন্ধ করার জন্য অনুরোধ করেছেন অনুশা শ্রীনিবাসন আইয়ার। টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘প্লিজ, গুজব ছড়ানো বন্ধ করুন। লতা দিদির অবস্থা আপাতত ভালো এবং উন্নতিও হচ্ছে। তার সুস্থতার জন্য আসুন সবাই মিলে প্রার্থনা করি।’ লতা মুঙ্গেশকরের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে তার এক নিকটজন লিখেছেন, ‘লতা দিদির অবস্থা স্থিতিশীল এবং তিনি সুস্থ হয়ে উঠেছেন। আপনাদের উদ্বেগ আর প্রার্থনার জন্য ধন্যবাদ।’

বার্তা সংস্থা পিটিআইকে মুম্বাইয়ের ব্রিচ ক্যানডি হাসপাতাল থেকে জানানো হয়েছে, লতা মুঙ্গেশকরের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে। তার অবস্থা এখন স্থিতিশীল। তবে পুরোপুরি সুস্থ হতে কিছুটা সময় লাগবে। এখনো তিনি নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত, ফুসফুসেও সংক্রমণ রয়েছে।

এদিকে লতা মুঙ্গেশকরের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ায় চলচ্চিত্র পরিচালক মধুর ভান্ডারকর তার বাড়িতে যান। সেখান থেকে ফিরে তিনি টুইটারে লিখেছেন, ‘লতা মুঙ্গেশকরের পরিবারের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তিনি এখন আগের চেয়ে অনেকটা ভালো আছেন, তার অবস্থার উন্নতি হচ্ছে। সবার কাছে অনুরোধ, আপনারা গুজব ছড়াবেন না।’ আর লতা মুঙ্গেশকরের আত্মীয় রচনা শাহ পিটিআইকে জানিয়েছেন, লতা মুঙ্গেশকরের শারীরিক অবস্থার উন্নতি অব্যাহত থাকলে কয়েক দিনের মধ্যে তাকে বাসায় নিয়ে যাওয়া হবে।

গত সোমবার রাতে হঠাৎ শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় লতা মুঙ্গেশকরকে ব্রিচ ক্যানডি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর দ্য হিন্দু জানায়, হাসপাতালে সিনিয়র মেডিকেল অ্যাডভাইজার ফারুখ ই উদওয়াডিয়ার তত্ত্বাবধানে আইসিইউতে ভেন্টিলেটর সাপোর্টে রাখা হয়েছে লতা মুঙ্গেশকরকে। সেদিন বিকেলে এক ঘনিষ্ঠ আত্মীয়কে উদ্ধৃত করে বার্তা সংস্থা এএনআই জানায়, লতা অনেকটাই সুস্থ আছেন। লতার ছোট বোন ঊষা মুঙ্গেশকর এবার পিটিআইকে বলেছেন, ‘দিদির অবস্থা অনেকটাই ভালো। ভাইরাল ইনফেকশন যাতে না হয়, সে কারণেই দিদিকে হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা করাচ্ছি।’

গত ২০ সেপ্টেম্বর ৯০ বছর পূর্ণ করেছেন লতা মুঙ্গেশকর। ২০০১ সালে তাকে ভারতের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মান ‘ভারতরতœ’ দেওয়া হয়। ১৯৮৯ সালে তিনি ‘দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার’ পান।