মণিপুরি মৃদঙ্গের তালে শুরু বটতলা রঙ্গমেলা|180982|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০
মণিপুরি মৃদঙ্গের তালে শুরু বটতলা রঙ্গমেলা
নিজস্ব প্রতিবেদক

মণিপুরি মৃদঙ্গের তালে শুরু বটতলা রঙ্গমেলা

মণিপুরি মৃদঙ্গের তালে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে গতকাল শনিবার শুরু হয়েছে এগারো দিনব্যাপী বটতলা আন্তর্জাতিক রঙ্গমেলা। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় মেলা উদ্বোধন করেন নাট্যজন আতাউর রহমান। রঙ্গমেলার উদ্বোধনী পরিবেশনায় মণিপুরি থিয়েটারের শিল্পীরা ঐতিহ্যবাহী মৃদঙ্গের তালে তালে নৃত্য পরিবেশন করেন। ‘ঢাক করতালে বাজুক জীবন’ শিরোনামের পরিবেশনাটির ভাবনা ও পরিকল্পনায় ছিলেন শুভাশিস সিনহা। উদ্বোধনী পর্বে প্রধান অতিথি ছিলেন সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মো. আবু হেনা মোস্তফা কামাল। বিশেষ অতিথি ছিলেন তরুণ নাট্যকার-সাধনা আহমেদ, রুমা মোদক ও শুভাশিস সিনহা। সভাপতিত্ব করেন রঙ্গমেলা উদযাপন পর্ষদের আহ্বায়ক অধ্যাপক মোহাম্মদ শফি।

বাংলাদেশসহ ভারত, স্পেন, ইরান ও নেপালের নাটক মঞ্চস্থ হবে বটতলা রঙ্গমেলায়। ‘নৃশংস নৈঃশব্দ্য ভেঙে সুনন্দ সাহস জাগুক প্রাণে প্রাণে’Ñ সেøাগান নিয়ে বটতলা আয়োজিত এ রঙ্গমেলা চলবে ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত। মেলার সমাপনী দিনে আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হবে নাট্যব্যক্তিত্ব মামুনুর রশীদকে। এ ছাড়া আট বিভাগের আট নাট্যজনকে সম্মাননা প্রদান করা হবে। পাশাপাশি মঞ্চে নেপথ্যে কাজ করেন এমন দশজনও পাচ্ছেন সম্মাননা। প্রতিদিন ‘মূল রঙ্গমঞ্চে’ সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বটতলাসহ বাংলাদেশের দুটি এবং বিদেশের আটটি দল নাটক পরিবেশন করবে। প্রতিদিন বহিরাঙ্গনে ‘নাদিম মঞ্চে’ মঞ্চস্থ হবে নাটক, গান, কবিতা, মূকাভিনয়, নাচসহ বিভিন্ন আনন্দ আয়োজন, যা মূলত শুরু হবে সন্ধ্যা ৬টায়।

রঙ্গমেলার সদস্য সচিব ও বটতলার আর্টিস্টিক ডিরেক্টর মোহাম্মদ আলী হায়দার বলেন, ‘এই রঙ্গমেলা সবার। যে কেউ মেলা প্রাঙ্গণের উন্মুক্ত মঞ্চে এসে নিজেদের মতো গান করতে পারে। বিভিন্ন পরিবেশনা নিয়ে অংশ নিতে পারে। এ ছাড়া আমাদের নির্ধারিত অনুষ্ঠান তো থাকছেই। এগার দিনের এই আয়োজনে সবাইকে আমন্ত্রণ জানাই।’