উল্লাপাড়া দিয়ে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়নি |181026|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০
উল্লাপাড়া দিয়ে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়নি
নাশকতার গন্ধ পাচ্ছি : মন্ত্রী
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

উল্লাপাড়া দিয়ে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়নি

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া রেলস্টেশন এলাকায় রংপুর এক্সপ্রেস আন্তঃনগর ট্রেন দুর্ঘটনার পর থেকে ঢাকার সঙ্গে উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চলে রেল যোগাযোগ ব্যাহত হচ্ছে। ১৪টি যাত্রীবাহী ট্রেনের প্রতিটিই দুই থেকে আড়াই ঘণ্টা দেরিতে ছাড়ছে। এতে করে হাজার হাজার যাত্রী গন্তব্যে পৌঁছাতে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। তবে রেলওয়ের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, দুই-এক দিনের মধ্যে সব ঠিক হয়ে যাবে। 

উল্লাপাড়া রেলস্টেশনের সহকারী স্টেশন

মাস্টার রফিকুল ইসলাম বলেন, এত বড় একটা দুর্ঘটনার পর শিডিউল তো একটু-আধটু বিলম্ব হয়েছেই। তবে যাত্রীরা তেমন ভোগান্তিতে নেই। প্রতিটি ট্রেনের বন্ধের দিনের পর থেকে এ সমস্যা ঠিক হয়ে যাবে।

পাকশী রেল বিভাগের ডিএমই (ক্যারেট) মো. মমতাজুল ইসলাম জানান, রেল বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা রাত-দিন মেরামতের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। পুড়ে ও উল্টে যাওয়া সব বগি উদ্ধার করে জামতৈল রেলস্টেশনে রাখা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত ইঞ্জিন রেললাইন থেকে সরিয়ে পাশে রাখা হয়েছে। দুই-এক দিনের মধ্যে সেখান থেকেও সরিয়ে নেওয়া হবে।

গতকাল শনিবার রাত ৮টার মধ্যে উল্লাপাড়া রেলস্টেশনের দুই নম্বর লাইনটি পুরোপুরি চালু করার কথা। তাহলে ব্রডগেজ ও মিটারগেজ লাইনের সব ধরনের ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়ে যাবে।

মেরামত কাজের তত্ত্বাবধায়ক রাজশাহী রেলওয়ে বিভাগের প্রজেক্ট অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট বিভাগের সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফ উদ্দিন বলেন, আজ (গতকাল) রাতের লাইনটি রেল চলাচলের উপযোগী হয়ে যাবে। এ রেললাইনটি চালু হলে ট্রেনের শিডিউল সমস্যা আর থাকবে না।

এদিকে উল্লাপাড়া রেলস্টেশনের সহকারী স্টেশন মাস্টার জোর দিয়ে দাবি করেন, সিগন্যাল ভুলের কারণে এ ট্রেন দুর্ঘটনা হয়নি। তিনি বলেন, টেকনিক্যাল প্রবলেম ও রেললাইনের ত্রুটির কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তদন্ত প্রতিবেদন ছাড়া সঠিক বলা যাবে না।

গতকাল দুপুরে উল্লাপাড়া ট্রেন দুর্ঘটনা এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, রাজশাহী ও পাকশী রেলওয়ে বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা রেললাইন মেরামত ও দুর্ঘটনাকবলিত ট্রেনের বগিগুলো রিলিফ ট্রেনের মাধ্যমে সরিয়ে নিচ্ছেন। পাশাপাশি উল্লাপাড়া রেলস্টেশনের ৩ নম্বর লাইন দিয়ে ধীরগতিতে সবগুলো ট্রেন আপ-ডাউন করছে।

এ বিষয়ে উল্লাপাড়া রেলস্টেশনের সহকারী স্টেশন মাস্টার রফিকুল ইসলাম জানান, শনিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ১৩টি ট্রেন কোনো সমস্যা ছাড়াই আপ-ডাউন করেছে। তবে ৩ নম্বর লাইন দিয়ে যাওয়ার কারণে গতি কমিয়ে দিতে হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেন উল্লাপাড়া রেলস্টেশন ক্রস করার সময় হঠাৎ বিকট শব্দে ইঞ্জিন ও ৬ বগি লাইনচ্যুত হয়ে উল্টে যায়। এ সময় ইঞ্জিনের তেলের ট্যাংক ফেটে ইঞ্জিন ও দুটি বগিতে আগুন লেগে পুড়ে যায়। অপর আরেকটি বগির আংশিক ক্ষতি হয়। এ ট্রেন দুর্ঘটনায় রেললাইনের প্রায় ৫০০ মিটার লাইন উপড়ে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

উল্লাপাড়ায় ট্রেন দুর্ঘটনায় নাশকতার আলামত পাচ্ছি : সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ট্রেন দুর্ঘটনায় নাশকতার আলামত পাওয়া যাচ্ছে বলে দাবি করেছেন রেলপথমন্ত্রী অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম সুজন। গতকাল শনিবার পঞ্চগড় সরকারি অডিটরিয়ামে চার দিনব্যাপী আয়কর মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমন দাবি করে আশা প্রকাশ করেন, শিগগিরই সঠিক ঘটনা উদঘাটন করতে পারব।

মন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, ২০১৪ সালে হরতালের নামে দেশের সম্পদ পুড়িয়ে নষ্ট করা হয়েছে। বাস ও ট্রেনে আগুন দেওয়া হয়েছে। সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ট্রেন দুর্ঘটনাতেও আমরা সেই ধরনের আলামত পাচ্ছি। ওই এলাকাতে এর আগে বনলতা এক্সপ্রেসে ঢিল মারলে দুইজন নিহত হন। এ ছাড়া ওই স্থানে রংপুর এক্সপ্রেসে নাশকতা চেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। তাই আমরা মনে করি এটি সন্ত্রাসী ও নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড।

মন্ত্রী বলেন, সেখানে কিছু লোক কাজ করছিল। আমরা তাদের গ্রেপ্তার করেছি। ষড়যন্ত্রকারীরা এখনো থেমে নেই। এসব দুর্ঘটনা তাদের ষড়যন্ত্রের অংশ হতে পারে। খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আশা করি পুলিশ প্রশাসনের মাধ্যমে শিগগিরই সঠিক ঘটনা উদঘাটন করতে পারব। মন্ত্রী এ সময় সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে সহযোগিতার জন্য কর সামর্থ্যবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

এর আগে মন্ত্রী বেলুন উড়িয়ে কর মেলার উদ্বোধন করেন। পরে বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন এবং করদাতাদের সঙ্গে কথা বলেন। চলতি অর্থবছরে পঞ্চগড় জেলায় ৩৩ কোটি টাকা কর আদায় নির্ধারণ করা হয়েছে। আরও প্রায় ৫ হাজার নতুন করদাতা তৈরি করতে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে।