কৃষকের সময় ও খরচ কমাবে সয়েল টেস্টিং কিট|181102|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ২০:০৫
কৃষকের সময় ও খরচ কমাবে সয়েল টেস্টিং কিট
বাকৃবি প্রতিনিধি

কৃষকের সময় ও খরচ কমাবে সয়েল টেস্টিং কিট

ছবি: দেশ রূপান্তর

কৃষকেরা একটি মাত্র সরঞ্জাম ব্যবহার করে নিজেরাই বলে দিচ্ছে মাটিতে সারের চাহিদা।  সারের পরিমান ঠিক করে দিচ্ছে অভিজ্ঞ কোনো ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সহায়তা ছাড়াই। এমন হলে কেমন হতো? 

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) মৃত্তিকা বিভাগ ও জার্মানির হামবোল্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ প্রচেষ্টায় এমনই একটি সরঞ্জাম উদ্ভাবিত হয়েছে। সরঞ্জামটির নাম দেওয়া হয়েছে 'সয়েল টেস্টিং কিট'।

'সয়েল টেস্টিং কিট'  নমুনা বিশ্লেষণ করে মাটির গুণাগুণ সম্পর্কে ধারণা দেয়, যা কিনা মাটিতে প্রয়োজনীয় এবং নির্দিষ্ট পরিমাণ সারের সুপারিশ করবে।

সরঞ্জামটির কাজ শুরু হয় ১৯৭০ এর দশকে। শুরুতে সরঞ্জামটি দিয়ে  মাটির পিএইচ,নাইট্রোজেন,ফসফরাস ও পটাশিয়ামের পরিমাণ নির্ণয় করা গেলেও বর্তমানে মাটিতে অর্গানিক মেটালের পরিমাণও নির্ণয় করা সম্ভব। ভবিষ্যতে মাটির সালফারের পরিমাণও নির্ণয় করা যাতে সম্ভব হয় সেই লক্ষ্যে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে গবেষকেরা।

মাত্র ৫ হাজার টাকার এই সয়েল টেস্টিং কিটটি কৃষকদের জন্য সহজেই ব্যবহারযোগ্য। এটি ব্যবহারে জটিল কোনো নিয়মকানুন নেই। কৃষকেরা খুব সহজেই শিখে নিতে পারবে সরঞ্জামটির ব্যবহারবিধি। একবার পূর্ণ করে  ১০০ টির মতো মাটির নমুনা বিশ্লেষণ করা যায় বলে সরঞ্জামটি সস্তা এবং কৃষকদের সময় ও শ্রম বাঁচাবে। এছাড়াও কোনোরকমের বৈদ্যুতিক শক্তি ছাড়াই ব্যবহার করা যাবে সরঞ্জামটি।

সয়েল টেস্টিং কিট সম্পর্কে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকা বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মফিজুর রহমান জাহাঙ্গীর বলেন, " রাসায়নিক গবেষণাগারে মাটির নমুনা পরীক্ষা করা ব্যয়বহুল ও সময়সাপেক্ষ। আমাদের উদ্ভাবিত সরঞ্জামটি ব্যবহার করে কৃষকেরা কম সময় ও জম খরচে মাটির নমুনা পরীক্ষা করতে পারবে। এছাড়াও সয়েল টেস্টিং কিটটি মাটির উর্বরতা বৃদ্ধিতে সহায়ক এবং পরিবেশবান্ধব। "

জানা যায়, সয়েল টেস্টিং কিটটি বর্তমানে রাজশাহী,ঠাকুরগাঁও, ময়মনসিংহ ও খুলনা জেলার মাঠ পর্যায়ে নিউম্যান(ঘঊটগঅঘ) প্রকল্পের অধীনে  পরীক্ষাধীন আছে। এছাড়াও কিটটি সরকারি,বেসরকারিভাবে বিভিন্ন এনজিও  সার ব্যবস্থাপনা যন্ত্র হিসেবে ব্যবহার করে আসছে। বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এসিআই 'সয়েল টেস্টিং কিট'টি বাণিজ্যিকভাবে বাজারজাতকরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলেও জানা গেছে।