দেশে ৬ মাসের লবণ মজুদ রয়েছে : শিল্পমন্ত্রী|181919|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২১ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:৫৬
দেশে ৬ মাসের লবণ মজুদ রয়েছে : শিল্পমন্ত্রী
নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে ৬ মাসের লবণ মজুদ রয়েছে : শিল্পমন্ত্রী

ফাইল ফটো

দেশে বর্তমানে ছয় মাসের চাহিদার সমপরিমাণ লবণ মজুদ রয়েছে বলে জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন।

তিনি বলেছেন, ‘গত মঙ্গলবার মিলগুলো থেকে বাজারে মোট ৩ হাজার ২০০ মেট্রিক টন লবণ সরবরাহ করা হয়েছে। নতুন মৌসুমে উৎপাদিত লবণও ইতিমধ্যে বাজারে আসতে শুরু করেছে। পর্যাপ্ত মজুদের ফলে শুধু ছয় মাস নয়, আগামী এক বছরেও লবণের কোনো ঘাটতি হবে না।’

বুধবার রাজধানীর একটি হোটেলে বাংলাদেশ ডিজিটাল ওয়েজস সামিটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে আয়োজিত এক সংবাদ সন্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, গত মৌসুমে ১৬ লাখ ৫৭ হাজার মেট্রিক টন জাতীয় চাহিদার বিপরীতে ১৮ লাখ ২৪ হাজার মেট্রিক টন লবণ উৎপাদন হয়েছে। এখন লবণ মিল ও চাষি পর্যায়ে ৬ লাখ ১১ হাজার মেট্রিক টন লবণ মজুদ রয়েছে। তিনি আরও বলেন, দেশে মোট লবণ মিলের সংখ্যা ২৭০। এর মধ্যে বর্তমানে ২২২টি মিল চালু রয়েছে। চালু মিলগুলোর মোট দৈনিক উৎপাদন ক্ষমতা ৩৫ হাজার ৫২০ মেট্রিক টন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বর্তমানে দেশে ৫০ শতাংশ ব্যাংকিং লেনদেন হয় অনলাইনে উল্লেখ করে তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, আগামী দুই বছর অর্থাৎ ২০২১ সালের মধ্যে দেশের ৯০ শতাংশ লেনদেন হবে ডিজিটাল মাধ্যমে; যা অনেক নিরাপদ ও সহজতর।

তিনি বলেন, ‘আমাদের দিয়ে কোনো কিছুই অসম্ভব নয়। গত ১০ বছরে ডিজিটাল বাংলাদেশ নিয়ে অনেক কাজ করেছে সরকার। এখন সরকারি অনেক সেবাই অনলাইনে পাওয়া যাচ্ছে। ইউনিয়ন পর্যায়ে পর্যন্ত চলে গেছে ডিজিটাল সেবা সেন্টার।’

তিনি আরও বলেন, ‘এখন আমাদের চেষ্টা অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনায় ডিজিটাল লেনদেন ব্যবস্থা করা। ইতিমধ্যে অনেক গার্মেন্টস ডিজিটাল মাধ্যমে বেতন-ভাতা দিচ্ছে। এতে করে তার সুফলও পাচ্ছে।’

সব ডিজিটাল পেমেন্ট সেবা একটি প্ল্যাটফর্মে নিয়ে আসার কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের ডিজিটাল পেমেন্ট করতে গেলে দুটি বিষয়ে লক্ষ রাখতে হবে, ইনফ্রাস্ট্রাকচার ও সচেতনতা। যার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপগুলো আমরা নিচ্ছি।’ 

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিজিএমইএর সভাপতি রুবানা হক, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আহামেদ জামাল প্রমুখ।