ভাঁজফোন আনল মটোরোলাও |182285|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৩ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০
ভাঁজফোন আনল মটোরোলাও

ভাঁজফোন আনল মটোরোলাও

একসময় ব্যাপক জনপ্রিয় ছিল মটোরোলার ফোল্ডেবল ফোন, রেজর। দীর্ঘ এক যুগেরও বেশি সময় পর তাদের ওই জনপ্রিয় পণ্যের নতুন ভার্সন নিয়ে হাজির হয়েছে সংস্থাটি। নকশা আগের মতো হলেও ফোন খুলতেই দেখা মিলবে আধুনিক ভাঁজফোনের চমক। আগে মটোরোলা রেজর ফোনের ভাঁজটি খুললে ওপরের অংশে মনিটর আর নিচের অংশে বাটন থাকত। এবার আর বাটনের কোনো চিহ্ন নেই। পুরোটিতেই আছে অ্যান্ড্রয়েড মনিটর।

স্যামসাং আর হুয়াওয়ের মতো কোম্পানিগুলো যখন ভাঁজফোন নিয়ে রীতিমতো প্রতিযোগিতায় নেমে পড়েছে, সে সময়ই নিজেদের নজরকাড়া ফোল্ডেবল ফোনকেই নতুন রূপে জনসম্মুখে এনেছে মটোরোলা। পূর্ববর্তী রেজর ফোনের সঙ্গেই মিল রেখে মটোরোলা এর নাম রেখেছে মটোরোলা রেজর। অ্যান্ড্রয়েডে চলবে এই রেজর ফোন।

কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন ৭১০ এবং ৬ দশমিক ২ ইঞ্চির ফোল্ডেবল ওএলইডি স্ক্রিনের এই ফোনে থাকছে ছয় জিবি র‌্যাম এবং ১২৮ জিবির ইন্টারনাল স্টোরেজ। সেকেন্ডারি ডিসপ্লে হিসেবে ২ দশমিক ৭ ইঞ্চির ওএলইডি থাকছে রেজর ফোনের পেছনে।

রেজর ফোনের পেছনে থাকছে ইলেকট্রনিক ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশনসমৃদ্ধ ১৬ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা, যা ফোন ফোল্ড করলে সেলফি ক্যামেরা হিসেবেও ব্যবহার করা যায়। ফোনের সামনে থাকছে পাঁচ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। পাশাপাশি ছবির জন্য আনলিমিটেড ক্লাউড স্টোরেজ। এ ছাড়া আশানুরূপ ব্লুটুথ পাঁচ এবং ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট তো থাকছেই। তবে এই ফোনের ডাউন সাইড হলো এর ব্যাটারি। দুটি ডিসপ্লে নিয়ে এর ২৫১০ মিলিএম্পের ব্যাটারি কত সময় ব্যাকআপ দিতে পারবে, তা নিয়ে যে কারোই দ্বিধা থাকতে পারে।

মটোরোলা রেজর ফোনের দাম ধরা হয়েছে ১৪৯৯ মার্কিন ডলার। তবে এই দামের একটি ফোন মিড-রেঞ্জ চিপসেট এবং অপেক্ষাকৃত কম ব্যাটারি নিয়ে কতটা ব্যবসাসফল হবে, তা বলা মুশকিল।