ভালো থাকি শীেতও|184898|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০
ভালো থাকি শীেতও
নাহার সুলতানা

ভালো থাকি শীেতও

শীতের সময় ত্বকের সাধারণ সমস্যার একটি ত্বকের শুষ্কতা।  সংক্রামণের ফলে ত্বক লাল, খসখসে ও চুলকানি দেখা দেয় । কনুই, হাঁটু, নিচের অংশ এবং মাথার ত্বকেই বেশি দেখা দেয়। এর কারণ শুকনো বাতাস, শীতল তাপমাত্রা, সূর্যের আলো কম এবং দুর্বল হাইড্রেশন সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রাখে।

সর্বদা ময়েশ্চারাইজ করুন : শীতল বাতাসের কারণে ত্বক প্রয়োজনীয় আর্দ্রতা হারায়।  যার ফলে ত্বক কোমল এবং নরম থাকে না। লাল ভাব বা চুলকানি রোধ করতে ত্বক ভালোভাবে ময়েশ্চারাইজ করতে হবে।  গোসলের সময় সুগন্ধযুক্ত এবং রাসায়নিক-মুক্ত ময়েশ্চারাইজিং সাবান বা জেল ব্যবহার করতে হবে। আর্দ্রতা ধরে রাখতে ঘন ক্রিম ব্যবহার করা উচিত। খাঁটি অ্যালোভেরা জেল, নারকেল তেল, জলপাই তেল ইত্যাদিও ময়েশ্চারাইজার ধরে রাখতে সাহায্য করে।
পানি পান করা : শীতের সময়ে কম পানি পান করা অনেকের কাছেই সাধারণ ব্যাপার। পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি  পান না করার ফলে ডিহাইড্রেশন হতে পারে। যা শুষ্ক ত্বকের একটি বড় কারণ। এছাড়া পানি কম পান করলে দেহে টক্সিন জমে , যার ফলস্বরূপ ত্বকের শুস্কতা বেড়ে সেরোসিস হয়। শুধু বাইরে থেকে ত্বক ময়েশ্চারাইজ করাই যথেষ্ট নয়।  ত্বককে ভেতর থেকেও ভালোভাবে হাইড্রেটেড করতে হবে। দেহে পানির মাত্রা ধরে রাখতে প্রতিদিন কমপক্ষে ৮ থেকে ১০ গ্লাস পানি পান নিশ্চিত করতে হবে।
সুন্দর গোসল : গরম পানিতে গোসল আপনার ত্বকের প্রাকৃতিক আর্দ্রতা এবং তৈলাক্ততা কমিয়ে দিতে পারে। তাই শীতের সময়টাতে খুব বেশি গরম পানিতে গোসল না করে কুসুম গরম পানিতে গোসলই আদর্শ। ত্বকের মরা চামড়া দুর করে ত্বক সতেজ করতে গোসলের কুসুম গরম পানির সাথে ওটমিল গুঁড়ো বা এপসোম লবণ  দিয়ে ত্বক ম্যাসাজ করে নিন। ত্বকের এই ধরনের স্ক্রাব এর ফলে ত্বকের মরা চামড়া দুর হয়ে যাবে।
শীতের উপযুক্ত পোশাক পরুন : তাপমাত্রা কমলে  বাতাসে আর্দ্রতার অভাবে শুষ্কতা দেখা দিতে পারে।  তাই ত্বকের উন্মুক্ত অংশ ঢেকে রাখার জন্য নরম স্কার্ফ, সোয়েটার , হুডি এবং হাতের গ্লাভস পরে বাইরে বের হবেন।  উলের পশমীযুক্ত কাপড় বেছে নিন ।
অন্যান্য : বেশিরভাগ পারফিউম এবং প্রসাধনীগুলিতে রঞ্জক এবং অন্যান্য রাসায়নিক থাকে যা ত্বক জ্বালাতে পারে। এই ধরনের পণ্য যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলুন । সংবেদনশীল ত্বকের জন্য উপযুক্ত পণ্য বেছে নিন। চর্বিযুক্ত খাবার এবং গরুর মাংস খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় তাজা ফল এবং শাকসবজি রাখুন। খাবারের তালিকায় দুধ রাখুন। চিনির ব্যবহার কমান ।  কোনও প্রদাহ বা লাল ভাব দেখা দিলে ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ খাবার বেছে নিন।  বাইরে বেরোনোর আগে আপনার সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। সম্ভব হলে বাতাসের আর্দ্র ঘরে বা অফিসে বজায় রাখতে হিউমিডিফায়ার ব্যবহার করুন। এটি আপনার ত্বককে শুষ্কতা থেকে রক্ষা করতেও সহায়তা করবে।