কী আছে ইন্তার-লিভারপুল-চেলসির ভাগ্যে?|185977|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:৩২
কী আছে ইন্তার-লিভারপুল-চেলসির ভাগ্যে?
অনলাইন ডেস্ক

কী আছে ইন্তার-লিভারপুল-চেলসির ভাগ্যে?

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলো নিশ্চিত করতে মঙ্গলবার রাতে মাঠে নামবে ইন্তার মিলান, বরুশিয়া ডর্টমুন্ড, লিভারপুল, নাপোলি, চেলসির মতো বড় দলগুলো।

‘এফ’ গ্রুপ থেকে আগেই শেষ ষোলো নিশ্চিত করা বার্সেলোনাকে সান সিরোতে আতিথেয়তা দেবে ইন্তার। একই গ্রুপে নিজ মাঠে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড খেলবে স্লাভিয়া প্রাগের বিপক্ষে। গ্রুপে ইন্তার এবং ডর্টমুন্ডের পয়েন্ট সমান ৭। তাই আজ বাদ পড়বে যে কোনো একটি দল।

এদিকে ‘ই’ গ্রুপের ৫ রাউন্ড শেষেও নিশ্চিত হয়নি লিভারপুল, নাপোলির মতো দলের শেষ ষোলো। এদিন গ্রুপের শেষ ম্যাচে ভিয়েনায় নিজ মাঠে চ্যাম্পিয়ন লিভারপুলের সঙ্গে খেলবে সালজবুর্গ। নিজ মাঠে নাপোলির প্রতিপক্ষ রেসিং গেঙ্ক।

স্বস্তিতে নেই ‘এইচ’ গ্রুপে থাকা আয়াক্স, চেলসি ও ভ্যালেন্সিয়াও। এই তিন দলের যে কোনো এক দল বাদ পড়বে আজ রাতে। তাই রাতের প্রায় সব ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ।

ইন্তার না বরুশিয়া?

বার্সেলোনা, ইন্তার মিলান ও বরুশিয়া ডর্টমুন্ড একই গ্রুপে থাকায় ‘এফ’ গ্রুপকে ধরা হয়েছিল ‘গ্রুপ অব ডেথ’। বার্সেলোনা ৫ ম্যাচে ১১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থেকে আগেই নিশ্চিত করেছে প্রি-কোয়ার্টার। অপরদিকে ডর্টমুন্ড ও ইন্তার দু’দলেরই পয়েন্ট সমান ৭। তবে ইন্তার ও ডর্টমুন্ডের মুখোমুখি লড়াইয়ে এগিয়ে ইন্তার মিলান। তাই আজ যদি দু’দলই তাদের নিজ নিজ ম্যাচ জেতে, সে ক্ষেত্রে শেষ ষোলোতে যাবে ইন্তার মিলান।

আর যদি বার্সার সঙ্গে ইন্তার হারে এবং স্লাভিয়ার সঙ্গে ডর্টমুন্ড ড্রও করে পয়েন্টে এগিয়ে থেকে শেষ ষোলোতে যাবে জার্মান ক্লাব। সেইদিকে ভালো অবস্থানে আছে ডর্টমুন্ড। তাদের খেলা গ্রুপের দুর্বল প্রতিপক্ষের সঙ্গে। স্লাভিয়ার পয়েন্ট মাত্র ২।

বার্সেলোনার বর্তমান ফর্ম বিবেচনা করলে পিছিয়ে ইন্তার মিলানই। সান সিরোতে সবশেষ দেখায় গত বছর ইন্তার ১-১ গোলে ড্র করেছিল বার্সেলোনার সঙ্গে। নিজেদের মাঠে ইন্তার সবশেষ ২০১০ সালে হারিয়েছিল বার্সেলোনাকে। চলতি টুর্নামেন্টে বার্সার মাঠে ২-১ গোলে হেরেছে আন্তোনিও কন্তের দল।

এই ম্যাচে জয়ের জন্য ইন্তার তাকিয়ে থাকবে রোমেলু লুকাকু ও লুতারো মার্টিনেজের দিকে। লা লিগা-চ্যাম্পিয়ন্স লিগ মিলিয়ে সবশেষ ৬ ম্যাচ জিতে ফর্মের তুঙ্গে বার্সেলোনা। আর মেসি প্রতিনিয়তই দেখিয়ে চলেছেন তার জাদু। চলতি মৌসুমে এখন পর্যন্ত খেলা ১৫ ম্যাচে করেছেন ১৪ গোল।

লিভারপুলের চাই ড্র

‘ই’ গ্রুপে লিভারপুল ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে। দুই নম্বরে থাকা নাপোলির পয়েন্ট ৯ এবং তিনে থাকা সালজবুর্গের ৭। তাই অস্ট্রিয়ান ক্লাবের সঙ্গে ড্র করলেই লিভারপুলের শেষ ষোলো নিশ্চিত। তবে হেরে গেলে দু’দলের পয়েন্টই হবে সমান। তখন হেড টু হেডে শেষ ষোলোতে চলে যেতে পারে সালজবুর্গ।

কেননা দু’দলের প্রথম লেগের ম্যাচটি লিভারপুল জেতে ৪-৩ ব্যবধানে। সে ক্ষেত্রে আজ রাতের ম্যাচে সালজবুর্গ জিতলে তখন দেখা হবে ‘হেড টু হেডে’ কোন দল বেশি গোল করেছে বা কার মাঠে কে কত বেশি গোল করেছে। সালজবুর্গ হেরে গেলেও পরের রাউন্ডে যেতে পারবে যদি গেঙ্কের কাছে হেরে যায় নাপোলি। তবে ৫ ম্যাচে ১৬ গোল খাওয়া গেঙ্কের বিপক্ষে জয়ের আশাই করছে নাপোলি।

চেলসি বাদ পড়বে?

‘এইচ’ গ্রুপে থাকা আয়াক্স, ভ্যালেন্সিয়া ও চেলসির যেকোনো দুই দল যাবে শেষ ষোলোতে। ৮ পয়েন্ট নিয়ে তিনে থাকা চেলসি খেলবে ৫ ম্যাচে মাত্র ১ পয়েন্ট পাওয়া ফ্রান্সের লিলের সঙ্গে। আয়াক্স ১০ পয়েন্ট নিয়ে আছে শীর্ষে। নিজ মাঠে তারা খেলবে ভ্যালেন্সিয়ার সঙ্গে। স্প্যানিশ ক্লাবটির পয়েন্ট ৮।

আয়াক্স ড্র করলেই উঠে যাবে পরের রাউন্ডে। তখন বাকি থাকবে চেলসি ও ভ্যালেন্সিয়ার ভাগ্য। যদি চেলসি জিতে যায় তবে শেষ ষোলোয় উঠে যাবে ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের দল। তবে বাদ পড়তে পারে আয়াক্সও। যদি চেলসি এবং ভ্যালেন্সিয়া জেতে নিজ নিজ ম্যাচ তবে বাদ পড়বে আয়াক্স। দুটি ম্যাচই ড্র হলে আয়াক্সের সঙ্গে যাবে ভ্যালেন্সিয়া ও চেলসির মধ্যে হেড টু হেডে এগিয়ে থাকা দল। সেখানে এগিয়ে ভ্যালেন্সিয়া।

এ ছাড়া ‘জি’ গ্রুপের দুই ম্যাচ শেষে জানা যাবে সেখান থেকে শেষ ষোলোতে যাচ্ছে কোন দুই দল।