গ্রুপসেরা ম্যান ইউনাইটেড ও আর্সেনাল|186787|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০
গ্রুপসেরা ম্যান ইউনাইটেড ও আর্সেনাল
ক্রীড়া ডেস্ক

গ্রুপসেরা ম্যান ইউনাইটেড ও আর্সেনাল

ইউরোপা লিগে শেষ ৩২ আগেই নিশ্চিত করেছিল ইংলিশ জায়ান্ট ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও আর্সেনাল। বৃহস্পতিবার গ্রুপসেরা হওয়ার লড়াইয়ে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ৪-০ গোলে হারিয়েছে এজেড আলকামারকে। তরুণ স্ট্রাইকার ম্যাসন গ্রিনউড করেন জোড়া গোল। ‘এফ’ গ্রুপে স্ট্যান্ডার্ড লিগের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করেও গ্রুপসেরা হয়েছে আর্সেনাল।

‘এল’ গ্রুপে নিজেদের শেষ ম্যাচের আগেই নক আউট রাউন্ড নিশ্চিত করেছিল ম্যান ইউনাইটেড এবং আলকামার। ম্যাচের প্রথমার্ধ ছিল গোলশূন্য। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধ নিজের করে নেন গ্রিনউড। ৫৩ মিনিটে গোল করে স্বাগতিকদের উল্লাসে মাতান অ্যাশলে ইয়ং। এরপর ৫৮ মিনিটে গ্রিনউড করেন ম্যাচে নিজের প্রথম এবং দলের দ্বিতীয় গোলটি। ৬২ মিনিটে ব্যবধান বাড়ান হুয়ান মাতা। স্পট কিক থেকে গোল করেন তিনি। রেড ডেভিলরা পেনাল্টি পায় গ্রিনউডের কল্যাণেই। দুই মিনিট পর আবারও গোল করেন গ্রিনউড। তাতে গড়েন নতুন এক রেকর্ড। ১৮ বছর ৭২ দিনে ইউনাইটেডের কনিষ্ঠতম ফুটবলার হিসেবে ইউরোপিয়ান ম্যাচে জোড়া গোলের রেকর্ড এখন তার। ইউরোপা লিগ বাদে এই মৌসুমের প্রায় পুরোটা সময়ই বদলি হিসেবেই খেলেছেন গ্রিনউড। মৌসুমে এখন পর্যন্ত গ্রিনউডের গোলসংখ্যা দাঁড়াল ছয়ে। ম্যান ইউনাইটেডের হয়ে তার চেয়ে বেশি গোল করেছেন মার্কাস রাশফোর্ড (১৩)। ১৩ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপসেরা ম্যান ইউনাইটেড।

আর্সেনাল ধীরে ধীরে গুছিয়ে নিচ্ছে নিজেদের। অন্তর্বর্তী কোচ ফ্রেডি ইউনবার্গের অধীনে লিগে জয়ে ফিরেছে আর্সেনাল। ইউরোপা লিগে দুই গোলে পিছিয়ে পড়েও ড্র করল গানাররা। ৪৭ মিনিটে স্যামুয়েল বাস্তিয়ান এবং ৬৯ মিনিটে সেলিম আমাল্লাহর গোলে এগিয়ে যায় স্ট্যান্ডার্ড লিগ। ৭৮ মিনিটে আর্সেনালের হয়ে এক গোল শোধ দেন আলেক্সান্দ্রে লাকাজেতে। ৮১ মিনিটে বুকায়ো শাকা গোল করে বাঁচান গানারদের। গ্রুপের অপর ম্যাচে আইনট্রাখট ফ্রাঙ্কফুর্ট ২-৩ গোলে হেরে যায় গুইমারেসের সঙ্গে। ফলে ১১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থেকেই শেষ ৩২ নিশ্চিত করে আর্সেনাল। হেরেও ৯ পয়েন্টে দ্বিতীয় স্থানে থেকে পরের রাউন্ডে উঠেছে ফ্রাঙ্কফুর্ট।

ইউরোপা লিগের নক আউট রাউন্ডের ৩২ দলই নিশ্চিত হয়েছে বৃহস্পতিবার। দুই ইংলিশ জায়ান্ট ছাড়াও আছে এএস রোমা, এস্পানিওল, গেতাফে, এফসি পোর্তো, সেল্টিক, সেভিয়ার মতো দল। ইউরোপা লিগের ২৪ দলের সঙ্গে যুক্ত হবে চলতি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের আট গ্রুপের তৃতীয় দল। সোমবার একই দিন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলো এবং ইউরোপা লিগের ৩২ দলের নকআউট রাউন্ডের ড্র অনুষ্ঠিত হবে।